গাজীপুর ঢাকা বিভাগীয় সংবাদ

আখেরি মোনাজাত আজ

নিজস্ব প্রতিবেদক, গাজীপুর: টঙ্গীর তুরাগ তীরের বিশ্ব ইজতেমা ময়দানে আজ রোববার অনুষ্ঠিত হবে মাওলানা জুবায়ের অনুসারীদের বিশ্ব ইজতেমার আখেরি মোনাজাত।

মুসল্লিদের সমাগমে ইজতেমাস্থল এবং এর আশপাশ এলাকা জনসমুদ্রে পরিণত হয়েছে। যতদূর চোখ যায় শুধু মুসল্লি আর মুসল্লি।

বাদ ফজর বাংলাদেশের মাওলানা রবিউল হকের বয়ানের মধ্য দিয়ে শেষ দিন আনুষ্ঠানিকতা শুরু হয়। এর পর অনুষ্ঠিত হবে হেদায়েতি বয়ান। হেদায়েতি বয়ান করবেন মাওলানা আব্দুর রহমান। মোনাজাত পরিচালনা করবেন বাংলাদেশের হাফেজ মাওলানা মুহাম্মদ জোবায়ের। আখেরি মোনাজাত সাড়ে ১০টা থেকে ১১টার মধ্যে যে কোন সময় শুরু হবে।

ইজতেমা শুরুর আগেই মুসল্লিদের সমাগমে ময়দান পূর্ণ হয়ে যায়। পরে মুসল্লিরা পাশ্ববর্তী কামারপাড়া সড়ক ও সড়ক দ্বীপে, ঢাকা ময়মনসিংহ মহাসড়কের ফুটপাতে, তুরাগ নদীর পশ্চিমপাড় সামিয়া টানিয়ে অবস্থান নেন। আখেরি মোনাজাতে শরিক হতে বিশ্ব ইজতেমার নিয়মিত মুসল্লিদের পাশাপাশি ঢাকা-গাজীপুরসহ দেশের বিভিন্ন জেলার ধর্মপ্রাণ মুসল্লিরা ইজতেমাস্থলে আসছেন।

রোববার ফজরের নামজের আগেই মুসল্লিরা কামারপাড়া সড়ক, টঙ্গী-কালীগঞ্জ সড়ক, ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে অবস্থান নেন। ওইসব স্থানেই তারা ফজরের নামাজ আদায় করেন। মুসল্লিদের সমাগমে ইজতেমাস্থল তথা টঙ্গী এখন জন সমুদ্রে পরিণত হয়েছে। অন্যান্য বারের চেয়ে এবার লোক সমাগত বেশি।

মোনাজাতের আগ পর্যন্ত মুসল্লিদের এ আসা অব্যাহত থাকবে। মুসল্লিদের আসা ও মোনাজাত শেষে মুসল্লিদের বাড়ি ফেরা নিবিঘ্ন করতে ইজতেমাস্থলমুখী সড়ক মহাসড়কে ট্রাফিক নিয়ন্ত্রণ করা হয়েছে।

গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের কমিশনার মো. আনোয়ার হোসেন জানিয়েছেন, আখেরি মোনাজাত উপলক্ষে আলাদা ট্রাফিক ব্যবস্থাপনা রয়েছে। মুসল্লিদের চলাচলের সুবিধার জন্য রোববার ভোর রাত ৪টা হতে টঙ্গীমুখী সবগুলো রাস্তা যানবাহন চলাচলের জন্য বন্ধ রাখা হবে। ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে উত্তরবঙ্গ থেকে ঢাকামুখী গাড়িগুলো গাজীপুর চৌরাস্তা, কোনাবাড়ি, এছাড়া ঢাকা বাইপাস সড়কের ভোগড়ায়, শাখারোড বোর্ডবাজার, মীরেরবাজার থেকে আসা প্রত্যেক সড়ক ক্রসিংগুলো বন্ধ করে দেয়া হবে। আর ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের ময়মনসিংহমুখী যানবাহনগুলো ঢাকার মহাখালী থেকে বন্ধ থাকবে। মোনাজাতের পর মুসল্লিরা ময়দান থেকে যাওয়ার পর রাস্তা যতক্ষণ পর্যন্ত স্বাভাবিক না হবে ততক্ষণ পর্যন্ত যানবাহন চলাচল বন্ধ থাকবে। পরিস্থিতির উপর ভিত্তি করে ৪টা বা ৫টার দিকে যানবাহন চলাচলের জন্য পুনরায় উন্মুক্ত করে দেয়া হবে।

এদিকে ইজতেমাস্থলের কয়েক কিলোমিটারের মধ্য যানবাহন চলাচল বন্ধ থাকায় মোনাজাতে শরিক হতে ভোর থেকে ধর্মপ্রাণ মুসিল্লরা হেঁটেই ইজতেমাস্থলের দিকে আসছেন। মহাসড়ক-সড়ক গুলোতে যেন ধর্মপ্রাণ মুসল্লিদের কাফেলা। অনেকে ট্রেনে করে অথবা ওইসব এলাকার অলিগলি রাস্তা দিয়ে রিকশা-ভ্যান, আটোরিকশা, মোটরসাইকেল ইত্যাদি হালকা যানবাহনে করে টঙ্গীতে আসতে দেখা গেছে। সড়ক-মহাসড়কে গাড়ি বন্ধ থাকায় টঙ্গীগামী ট্রেনগুলো ছিল মানুষে ঠাসা। আবার হাঁটা এড়াতে অনেক মুসল্লি শুক্রবার রাতেই ইজতেমাস্থলে পৌঁছেছেন।

আখেরি মোনাজাতে শরিক হতে নরসিংদীর মাদবদী এলাকা থেকে সাব্বিরসহ তিন যুবক আসেন ইজতেমাস্থলে। ভোর সাড়ে ৫টার দিকে ময়দান সংলগ্ন টঙ্গী-কালীগঞ্জ সড়কে তার সঙ্গে কথা হয়। তিনি জানান, মোনাজাতে অংশ নিতে তারা গত রাতে মাদবদী থেকে টঙ্গী এসেছেন। টঙ্গীর স্টেশন রোড এলাকার একটি মসজিদে রাত্রি যাপন করে ময়দানে এসেছেন।

আজ আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে শেষ হচ্ছে মাওলানা জুবায়ের অনুসারি মুসল্লিদের বিশ্বইজতেমা। এর পর চারদিন বিরতি দিয়ে একই ময়দানে ১৭, ১৮ ও ১৯ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত হবে দ্বিতীয় পর্বের ইজতেমা। এ ইজতেমায় মাওলানা সা’দ অনুসারী মুসল্লিগণ অংশ নেবেন।

 

যাদের বাচ্চা আছে, এই এক গেইমে আপনার বাচ্চার লেখাপড়া শুরু এবং শেষ হবে খারাপ গেইমের প্রতি আসক্তিও। ডাউনলোডকরুন : http://bit.ly/2FQWuTP







আপনি আরও যা পড়তে পারেন


rocket

সর্বশেষ সংবাদ