আতশবাজি নিয়ে সংঘর্ষে বন্ধুর হাতে বন্ধু খুন, গ্রেফতার ৩

জুমবাংলা ডেস্ক : রাজশাহীর চারঘাটে ঈদ উপলক্ষে আতশবাজি নিয়ে সংঘর্ষের ঘটনায় আশিক ইসলাম (১৮) নামের এক কলেজছাত্র নিহত হয়েছে। মঙ্গলবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে তার মৃত্যু হয়।

নিহত আশিক ইসলাম উপজেলার চারঘাট পৌরসভার মেরামাতপুর গ্রামের আসলাম আলীর ছেলে এবং এইচএসসি প্রথম বর্ষের ছাত্র। এ ঘটনায় তিনজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

গ্রেফতারকৃতরা হলেন-নিহত আশিক ইসলামের বন্ধু ও প্রধান অভিযুক্ত উপজেলার ডালিপাড়া গ্রামের আশিক আলীর বাবা কালাম আলী, মা আরিফা বেগম ও বড় ভাই আরিফ। প্রধান অভিযুক্ত আশিক আলী ও নিহত আশিক ইসলাম একই বর্ষের শিক্ষার্থী।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, মঙ্গলবার রাত ৮টার দিকে নিহত আশিক ইসলাম ও তার বন্ধুরা স্থানীয় কাঁকড়ামারী বাজারে আতশবাজি কিনতে যায়। আতশবাজি নিয়ে ফেরার পথে বন্ধু আশিক আলীর সঙ্গে দেখা হয় তাদের। এ সময় আশিক আলী আশিক ইসলাম ও তার বন্ধুদের কাছে থেকে মজার ছলে আতশবাজি কেড়ে নিয়ে পালিয়ে যায়।

পরে রাত ১০টার দিকে আশিক ইসলাম ও তার কয়েকজন বন্ধু মিলে ডালিপাড়া গ্রামে আশিক আলীর বাড়িতে যায় আতশবাজি উদ্ধার করতে। এ সময় দুই আশিকের মধ্যে কথা-কাটাকাটি হয়। একপর্যায়ে আশিক আলীর পরিবারের সঙ্গে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে আশিক ইসলাম ও তার বন্ধুরা। এতে আশিক আলী ও আশিক ইসলাম দুজনই আহত হয়।

স্থানীয় গ্রামবাসী আহতদের উদ্ধার করে উপজেলা হাসপাতালে নেওয়ার পথে আশিক ইসলামের মৃত্যু হয়। এ ঘটনায় আশিক আলীর বাবা কালাম আলী, মা আরিফা বেগম ও বড় ভাই আরিফকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

চারঘাট মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জাহাঙ্গীর আলম বলেন, আতশবাজি নিয়ে সংঘর্ষের ঘটনায় আশিক ইসলাম নামে একজন নিহত হয়েছে। এ ঘটনায় নিহতের পিতা আসলাম আলী বাদী হয়ে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছেন। উক্ত ঘটনায় অভিযান পরিচালনা করে তিনজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। মূল আসামিকেও গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।


জুমবাংলানিউজ/এসআর