in

আফগান দোভাষীদের প্রথম দল যুক্তরাষ্ট্রে পৌঁছেছে

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : আফগানিস্তানে তালেবানবিরোধী যুদ্ধে মার্কিন বাহিনীকে সহায়তা করা আড়াই হাজার দোভাষীকে সরিয়ে নেওয়ার পরিকল্পনার আওতায় যুক্তরাষ্ট্রে পৌঁছেছে প্রায় ২০০ দোভাষী ও তাদের পরিবারের সদস্যদের প্রথম দল।

বিবিনি জানায়, শুক্রবার সকালে এইসব দোভাষী ও তাদের পরিবার যুক্তরাষ্ট্রে পৌঁছেছে। তাদেরকে ভার্জিনিয়ার ফোর্ট লি সামরিক ঘাঁটিতে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। অতীত ও জীবনবৃত্তান্ত খতিয়ে দেখা, স্বাস্থ্য পরীক্ষাসহ ভিসার অন্যান্য প্রক্রিয়া সম্পন্ন হওয়া পর্যন্ত সেখানেই থাকবেন তারা। এ সময়টিতে তাদের পুনর্বাসন প্রক্রিয়া শেষ করা হবে।

যুক্তরাষ্ট্রের কর্মকর্তারা জানান, অভিবাসন যোগ্য এমন ২০০ জন তাদের পরিবারসহ প্রথম ফ্লাইটে এখানে এসে পৌঁছান। কাগজপত্র সম্পন্ন শেষে আগামী কয়েক সপ্তাহে আরো ৭০০ জন এসে পৌঁছাবেন।

২০০৮ সাল থেকে প্রায় ৭০ হাজার আফগান নাগরিককে ‘বিশেষ অভিবাসী ভিসা’ কর্মসূচির আওতায় যুক্তরাষ্ট্রে পুনর্বাসিত করা হয়েছে। এবারও সেই ভিসা কর্মসূচির আওতাতেই আফগান দোভাষীদের যুক্তরাষ্ট্রে পুনর্বাসন করা হচ্ছে।

২০০১ সাল থেকে আফগান যুদ্ধ চলাকালে যারা যুক্তরাষ্ট্র সরকার বা মার্কিন নেতৃত্বাধীন সামরিক বাহিনীর সঙ্গে কাজ করেছে তাদের জন্য এই ‘বিশেষ অভিবাসী ভিসা’ কর্মসূচি চালু করেছে ওয়াশিংটন।

গত সপ্তাহে মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রণালয়ের এক ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা বলেছেন, ভিসা আবেদনকারীদের মোট সংখ্যা এখন দাঁড়িয়েছে ২০ হাজারের ওপরে। তার মধ্যে অর্ধেকেরই এখনও ভিসা প্রক্রিয়ার প্রথম ধাপ সম্পন্ন হওয়া বাকি।

যুক্তরাষ্ট্র ও দেশটির নেতৃত্বাধীন জোটের সেনা প্রত্যাহারের সুযোগে আফগানিস্তানের বড় অংশ দখল করে নিয়েছে সশস্ত্র রাজনৈতিক গোষ্ঠী তালেবান। আফগান ভূখণ্ডের ৮৫ শতাংশই নিজেদের নিয়ন্ত্রণে বলে দাবি করেছে গোষ্ঠীটি।

দাবির সত্যতা নিয়ে নিশ্চিত হওয়া না গেলেও তালেবান আফগানিস্তানের পূর্ণ নিয়ন্ত্রণ নেয়ার পথে কৌশলগত বিজয় অর্জন করেছে বলে সম্প্রতি মন্তব্য করেন যুক্তরাষ্ট্রের শীর্ষ সেনা কর্মকর্তা মার্ক এ মাইলি।

বিদেশি সেনাদের অনুপস্থিতিতে তাদের সহযোগিতা করা আফগান নাগরিকরা তালেবানের প্রতিহিংসার শিকার হতে পারেন বলে শঙ্কা ঘনিয়ে উঠেছে, যার পরিপ্রেক্ষিতে এমন উদ্যোগ ওয়াশিংটনের। সূত্র : বিবিসি

অনলাইনে খুব সহজে টাকা ইনকাম করার উপায়