আবু ত্ব-হাকে নিজ জিম্মায় ছেড়ে দিয়েছেন আদালত

জুমবাংলা ডেস্ক : ইসলামি বক্তা আবু ত্ব-হা মুহাম্মদ আদনান ও তার ২ সঙ্গীকে জবানবন্দি দেওয়ার পর নিজ জিম্মায় ছেড়ে দিয়েছেন আদালত।

শুক্রবার (১৮ জুন) রাত পৌনে ১২টায় এ আদেশ দেন চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট হাফিজ উদ্দিন।

এর আগে রাতে আবু ত্ব-হা মুহাম্মদ আদনান, গাড়ি চালক আমির হোসেন ও মুহিদকে ডিবি কার্যালয় থেকে আদালতে নেওয়া হয়।

তাদের উদ্ধারের পর বিকেলে রংপুর ডিবির কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত কমিশনার আবু মারুফ হোসেন জানান, আবু ত্ব-হা মুহাম্মদ আদনানকে রংপুরে তার প্রথম স্ত্রীর বাসা থেকেই উদ্ধার করা হয়েছে। আদনানের সঙ্গে উদ্ধার করা হয় তার তিন সঙ্গীকে। ত্ব-হা আদনান গাইবান্ধায় এক বন্ধুর বাড়িতে আত্মগোপন করেছিলেন বলেও জানান তিনি।

আবু মারুফ হোসেন বলেন, মা ও ভাইয়ের জিডির সূত্রে আমরা অনুসন্ধান করতে থাকি। গোপন সূত্রে জানতে পারি আবু ত্ব-হা তার প্রথম স্ত্রীর সঙ্গে আছেন। সেই সংবাদ পেয়ে আমরা তাকে নিয়ে আসি। তাকে জিজ্ঞাসাবাদের একপর্যায়ে আমরা অপর সঙ্গীদের সন্ধান পাই।
তিনি আরও জানান, আত্মগোপনের দিন গাড়ির চালকসহ অন্য দুই বন্ধুর মোবাইল ফোন আদনানই নিয়ে ‘অফ’ করে নিজের কাছে রাখেন।

প্রায় দেড় ঘণ্টা ধরে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের পর পুলিশ বিকেল ৫টার দিকে জানায়, ব্যক্তিগত কারণে গাইবান্ধার ত্রি-মোহনিতে শিহাব নামে এক বন্ধুর বাড়িতে আত্মগোপন করেছিলেন তারা। তবে কী সেই ব্যক্তিগত কারণ তা পুলিশ এখনই জানাতে রাজি হয়নি।
এর আগে শুক্রবার বিকেলে তার খোঁজ পাওয়া যায়। প্রথমে দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে তাকে শ্বশুরবাড়ি আজহারুল ইসলাম মন্ডলের বাড়িতে ঢুকতে দেখেন তার প্রতিবেশী বিপ্লব মিয়া।

পুলিশ জানায়, নিখোঁজ বক্তা আবু ত্ব-হা রংপুরের খামার মোড়ের মাস্টারপাড়া এলাকায় তার শ্বশুরবাড়িতে জুমার নামাজের পর ফিরে আসেন। বিকেল ৩টার দিকে পুলিশ এসে তাকে হেফাজতে নেয়। এরপর মহানগর ডিবি অফিসে নিয়ে তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়।

গত ১০ জুন রংপুর থেকে ঢাকা যাওয়ার পথে তিন সঙ্গীসহ নিখোঁজ হন ইসলামি বক্তা আবু ত্ব-হা মুহাম্মদ আদনানসহ তিন সঙ্গী।

এ ঘটনায় সন্তানের খোঁজ চেয়ে গত ১১ জুন রংপুর কোতোয়ালি থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন তার মা আজেদা বেগম।

জিডিতে তার মা উল্লেখ করেন, বৃহস্পতিবার (১০ জুন) বিকেল চারটার দিকে তিন সঙ্গীসহ আদনান রংপুর থেকে ভাড়া করা একটি গাড়িতে ঢাকায় রওনা দেন। রাতে মোবাইল ফোনে সর্বশেষ কথা হলে আদনান সাভারে যাচ্ছেন বলে তাকে জানান। এরপর রাত ২টা ৩৬ মিনিটে স্ত্রী হাবিবা নূরের সঙ্গে মোবাইল ফোনে কথা হয় আবু ত্ব-হা মুহাম্মদ আদনানের। এ সময় তিনি ঢাকার গাবতলীতে আছেন বলে জানান। তারপর থেকেই তার ফোন বন্ধ থাকায় আর যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি।

আজেদা বেগম আরও জানান, আদনানের ফোনে একাধিকবার কল করেও যোগাযোগ করা যায়নি। এরপর সম্ভাব্য সব জায়গায় খোঁজাখুঁজি শেষে তাকে না পেয়ে শুক্রবার সন্ধ্যায় রংপুর কোতোয়ালি থানায় জিডি করা হয়।

গত ১৬ জুন আবু ত্ব-হা মুহাম্মদ আদনান ও তার তিন সহযোগীকে ফেরত পেতে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করে সংবাদ সম্মেলন করেন স্ত্রী।

নিখোঁজ আদনান অনলাইনে ধর্মীয় বক্তা হিসেবে পরিচিত। আদনানের বাড়ি রংপুর নগরীর সেন্ট্রাল রোডের আহলে হাদিস মসজিদ এলাকায়। তবে ত্ব-হা তার স্ত্রী এবং দেড় বছরের ছেলে ও তিন বছরের মেয়েকে নিয়ে শালবন মিস্ত্রীপাড়া চেয়ারম্যান গলিতে ভাড়া বাসায় থাকেন। আদনান অনলাইনে আরবি পড়ানোর পাশাপাশি দেশের বিভিন্ন মসজিদে গিয়ে জুমার খুতবা দিতেন।

আবু ত্ব-হা মুহাম্মদ আদনান ২০১৮ সালে একটি ইসলামি ট্যালেন্ট হান্ট প্রতিযোগিতায় রানারআপ হন। এরপর ইসলামি শিক্ষা বিষয়ক ইউটিউব চ্যানেল খোলেন। পাশাপাশি দেশের বিভিন্ন মসজিদে দেওয়া জুমার খুদবা তার নিজের চ্যানেলে প্রচার করে জনপ্রিয়তা পান।


জুমবাংলানিউজ/এসআই