in ,

ইউরোপের ফুটবল ছেড়ে কাতারি ক্লাবে রদ্রিগেজ

হামেস রদ্রিগেজ। (ফাইল ছবি)

স্পোর্টস ডেস্ক: ইউরোপিয়ান ফুটবল ছেড়ে কাতারের একটি ক্লাবে যোগ দিয়েছেন হামেস রদ্রিগেজ। রিয়াল মাদ্রিদ ও এভারটনের সাবেক এই কলম্বিয়ান প্লে-মেকারের বর্তমান ঠিকানা কাতারি ক্লাব আল-রায়ান।

বুধবার এক বিবৃতিতে হামেস রদ্রিগেজের সঙ্গে চুক্তি স্বাক্ষরের বিষয়টি নিশ্চিত করেছে আল-রায়ান। গত সোমবার স্বাস্থ্য পরীক্ষা শেষে চুক্তির ব্যাপারে সম্মতি দেন হামেস। তবে ট্রান্সফার ফি কত তা জানানো হয়নি।

২০১৪ ব্রাজিল বিশ্বকাপে সর্বোচ্চ গোলদাতার পুরস্কার গোল্ডেন বুট জিতে চমকে দেন হামেস। এরপর তার প্রতি রিয়াল মাদ্রিদসহ ইউরোপের শীর্ষ ক্লাবগুলোর নজর পড়ে। একই বছর তাকে ফরাসি ক্লাব মোনাকো থেকে সান্তিয়াগো বার্নাব্যুতে নিয়ে আসেন কার্লো আনচেলত্তি। কিন্তু এক বছর পর রিয়াল ছাড়েন ৬২ বছর বয়সী ইতালিয়ান কোচ। হামেসও তার অবস্থান হারিয়ে ফেলেন। ছয় বছর রিয়ালে থাকলেও মূল একাদশে নিয়মিত হতে পারেননি তিনি।

হামেসের ক্যারিয়ারে আনচেলত্তির ভূমিকা অনেক। কারণ রিয়াল ছেড়ে তিনি বায়ার্ন মিউনিখে যোগ দেওয়ার পর ২০১৭-২০১৯ মৌসুমের জন্য শিষ্যকে ধারে নিয়ে যান নিজের কাছে। বায়ার্ন অধ্যায় শেষে রিয়ালে ফিরলেও সাবেক কোচ জিনেদিন জিদানের দলে নিয়মিত হতে পারেননি তিনি। এরপর ফের একবার আনচেলত্তির ডাকে রিয়াল ছেড়ে যান তিনি।

গত বছরের সেপ্টেম্বরে এভারটনে যোগ দিয়েছিলেন হামেস। এরপর এক বছর গুডিসন পার্কে কাটিয়ে সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে খেলেছেন ২৬ ম্যাচ, গোল করেছেন ৬টি। কিন্তু কোচ বদলে যেতেই ভাগ্য বদলে যায় তার। আর এবার তার গুরু আনচেলত্তি দ্বিতীয় দফায় রিয়ালে ফিরলেও তাকে নিয়ে যেতে পারেননি।

এভারটনের নতুন কোচ রাফায়েল বেনিতেজ চলতি মৌসুমে দায়িত্ব নেওয়ার পর দলে ব্রাত্য হয়ে পড়েন হামেস। চলতি মৌসুমে দলটির হয়ে এক ম্যাচেও খেলার সুযোগ পাননি একসময়ের সাড়া জাগানো এই মিডফিল্ডার। গত ১৬ মে সর্বশেষ ইংলিশ ফুটবলের শীর্ষ লিগের ৯ বারের চ্যাম্পিয়নদের হয়ে মাঠে নেমেছিলেন ৩০ বয়সী তারকা।

এভারটনে বার্ষিক ৭ মিলিয়ন ইউরো বেতন পেলেও কাতারি ক্লাবে হামেসের বেতন কত তা জানা যায়নি। তবে মূলত মাঠে নামার তাড়া থেকেই তার এই দলবদল বলে ধারণা করা হচ্ছে। কারণ কলম্বিয়া জাতীয় দলেও জায়গা হারিয়েছেন তিনি। দলটি এখনও বিশ্বকাপের বাছাই উতরাতে পারেনি। কিন্তু বাছাইপর্বের অধিকাংশ ম্যাচেই ডাক পাননি হামেস। কোচের মন গলাতেই তাই বিশ্বকাপের আয়োজক দেশের ক্লাবেই খেলতে গেলেন তিনি।