ইরাকে করোনা হাসপাতালে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড, মৃত বহু

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: ইরাকের নাসিরিয়া শহরের করোনা হাসপাতালে ভয়াবহ আগুনের ঘটনায় কমপক্ষে ৫০ জন নিহত হয়েছে। মৃতের সংখ্যা আরো বাড়তে পারে বলে সরকারিভাবে জানানো হয়েছে। খবর রয়টার্স ও এপি’র।

সামাজিক মাধ্যমের ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, পুরো হাসপাতালটিতে আগুন ধরে গেছে। কালো ধোঁয়া ছেয়ে গেছে। সোমবার এই আগুন লাগে।

কী করে আগুন লাগল

স্বাস্থ্য দফতরের এক কর্মকর্তা জানিয়েছেন, অক্সিজেন ট্যাঙ্কে বিস্ফোরণের পর আগুন লাগে। আবার ইরাকের এক সরকারি কর্মকর্তা জানিয়েছেন, আগুনের কারণ হলো শর্ট সার্কিট।

এই হাসপাতালে ৭০ বেডের করোনা ওয়ার্ড তিন মাস আগে চালু হয়েছিল। ইরাকের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেছেন, মূল ভবনের পাশে করোনা হাসপাতাল পুরো পুড়ে গেছে। প্রধানমন্ত্রী আগুনের কারণ নিয়ে আলোচনা করতে মন্ত্রিসভার জরুরি বৈঠকও ডেকেছিলেন।

ইরাকের সামাজিক মাধ্যমে দাবি উঠেছে, দুর্নীতিগ্রস্ত কর্মকর্তাদের শাস্তি দিতে হবে। সংবাদসংস্থা রয়টার্সকে এক তরুণের প্রশ্ন, ”আমার বাবার দেহ কোথায়? আগুনে এতজন রোগীর মৃত্যু হলো, তার জন্য কেন দোষীদের শাস্তি হবে না?”

দ্বিতীয় বড় আগুনের ঘটনা

গত এপ্রিলে বাগদাদে ইবন আল-খাতিব হাসপাতালে আগুন লেগে ৮২ জনের মৃত্যু হয়েছিল। সেখানে আগুনের কারণ ছিল অক্সিজেন ট্যাঙ্কে বিস্ফোরণ। তারপর এটাই হলো হাসপাতালে আগুন লাগার দ্বিতীয় বৃহত্তম ঘটনা।

ইরাকে এখন করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে। গত সপ্তাহে এক দিনে নয় হাজার মানুষ আক্রান্ত হয়েছেন। তার উপর স্বাস্থ্য পরিকাঠামোর অবস্থা শোচনীয়। চিকিৎসকের সংখ্যা প্রয়োজনের তুলনায় অনেক কম। দেশের অনেক চিকিৎসকই বিদেশে চলে গেছেন। ফলে পরিস্থিতি যথেষ্ট খারাপ।


জুমবাংলানিউজ/এইচএম