অর্থনীতি-ব্যবসা আন্তর্জাতিক

ইস্পাত খাতে দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ায় বিনিয়োগ বাড়াচ্ছে চীন

ispatঅর্থনীতি ডেস্ক : ইস্পাত খাতে দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ায় বিনিয়োগ বাড়াচ্ছে চীন। যার অংশ হিসেবে ইন্দোনেশিয়া, মালয়েশিয়ার মতো দেশগুলো পাবে চীনের ওই বিনিয়োগ। ফলে এ অঞ্চলে ইস্পাতের উৎপাদন সক্ষমতা পাঁচ কোটি টন বাড়বে বলে মনে করা হচ্ছে। খবর রয়টার্স।

ওয়ার্ল্ড স্টিল অ্যাসোসিয়েশনের তথ্য অনুযায়ী, চীনে আগামী বছর ইস্পাতের চাহিদার প্রবৃদ্ধিতে শ্লথগতি থাকবে। এ সময় দেশটিতে ইস্পাতের চাহিদা ৭ দশমিক ৮ শতাংশ বৃদ্ধির পূর্বাভাস থাকলেও সেটি কমে ১ শতাংশে আসতে পারে।

তবে এর বিপরীত চিত্র দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার বাজারে। আগামীতে ইস্পাতের বৈশ্বিক ব্যবহারের সবচেয়ে বেশি হতে পারে এ অঞ্চলের দেশগুলোয়। প্রতিষ্ঠানটির দেয়া তথ্য অনুযায়ী, আগামী বছর দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার দেশগুলোয় ইস্পাতের চাহিদা বাড়বে ৫ দশমিক ৬ শতাংশ। যেখানে আগের প্রাক্কলনে ৩ দশমিক ১ শতাংশ বৃদ্ধির কথা জানানো হয়। এ অঞ্চলে অবকাঠামো খাতের দ্রুত প্রসারের কারণে ইস্পাতের চাহিদা বাড়বে। এ কারণেই উদীয়মান এসব বাজার ধরতে চীন এখন এ অঞ্চলের ইস্পাত খাতে বিনিয়োগ বাড়াতে চলেছে।

সাউথ-ইস্ট এশিয়া আয়রন অ্যান্ড স্টিল ইনস্টিটিউটের (এসইএআইএসআই) মহাসচিব তান আ ইয়ং জানান, দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার দেশগুলোর ইস্পাত খাতে মেগা প্রকল্পে চীনের বিনিয়োগ বাড়ানোর পরিকল্পনা রয়েছে। এরই মধ্যে গত দু-তিন বছর দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার দেশগুলোয় বিশেষ করে ফিলিপাইন, মালয়েশিয়া ও ইন্দোনেশিয়ায় বিনিয়োগ বাড়িয়েছে চীন।



জুমবাংলানিউজ/পিএম




আপনি আরও যা পড়তে পারেন


Add Comment

Click here to post a comment

সর্বশেষ সংবাদ

Adblocker detected! দয়া করে নিচের লেখাটি পড়ুন

আপনি অ্যাডব্লকার প্লাস বা অন্য কোনও অ্যাডব্লকিং সফ্টওয়্যার ব্যবহার করছেন যা নিউজটি সম্পূর্ণরূপে লোড হতে বাধা দিচ্ছে।

আমাদের সাইটে কোনও ক্ষতিকর ব্যানার, ফ্ল্যাশ, অ্যানিমেশন, অযথা শব্দ বা পপআপ বিজ্ঞাপন নেই। আমরা বিরক্তিকর কোন বিজ্ঞাপন সাইটে রাখি নাই।

সাইটটি পরিচালনা করতে আমাদের অর্থের প্রয়োজন এবং এই অর্থ আমাদের অনলাইন বিজ্ঞাপন থেকে আসে।

দয়া করে অ্যাডব্লকিং সফ্টওয়্যারে  zoombangla.com হোয়াইটলিস্ট অথবা অ্যাডব্লকার ডিজেবল করুন।

×