in

এই নায়িকাও কম বয়সী ছেলে-মেয়েদের দিয়ে প র্ন সিনেমা বানাতেন

প র্ন ছবি তৈরি এবং ছড়িয়ে দেওয়ার অভিযোগে সোমবার রাতে গ্রেপ্তার হন শিল্পা শেট্টির স্বামী রাজ কুন্দ্রা। ‘হটশট’ নামে একটি অ্যাপের মাধ্যমে এই ভিডিও প্রকাশ করতেন রাজ। মুম্বাইয়ের উপকণ্ঠে মাড আইল্যান্ডের ভাড়া নেওয়া একটি বাংলোয় দিনভর শ্যুটিং হতো।

তদন্তে নেমে মুম্বাই পুলিশের অপরাধ দমন শাখা জানতে পেরেছে, রাজ প্রথম দিকে অ্যাপ থেকে প্রতিদিন দুই থেকে তিন লক্ষ টাকা আয় করতেন। লকডাউনে সেই আয় বেড়ে হয়েছিল ছয় থেকে আট লক্ষ টাকা। কিন্তু জানেন কি রাজ একা নন, রাজের মতো বলিউডের এক অভিনেত্রীও টাকার প্রলোভন দেখিয়ে উঠতি অভিনেতা-অভিনেত্রীদের দিয়ে প র্ন ছবি বানাতেন। পরে যার জন্য তাকেও গ্রেপ্তার করেছিলো পুলিশ।

তিনি গহনা বশিষ্ঠ। বলিউডের পরিচিত মুখ। ছবি থেকে বিজ্ঞাপন, এমনকী ওয়েব সিরিজ -সর্বত্রই বিচরণ তার। তবে চলতি বছরের গোড়ার দিকে সম্পূর্ণ ভিন্ন কারণে সংবাদমাধ্যমের নজর কেড়েছিলেন তিনি। অভিনয়ের বাইরেও তার নতুন ভূমিকার সন্ধান পাওয়া গিয়েছিলো। তিনি নাকি প র্ন ভিডিও প্রস্তুতকারকও।

নিজের পরিচিতি কাজে লাগিয়ে টাকার লোভ দেখিয়ে কম বয়সী পরিশ্রমী ছেলে-মেয়েদের দিয়ে প র্ন ছবি বানাতেন তিনি। যে কারণে তাকে গ্রেপ্তার হতে হয়েছিলো।

গহনার জন্ম ছত্তীসগঢ়ে। বাবা ছিলেন শিক্ষা দফতরের কর্মী এবং তার ঠাকুরমা ছিলেন একটি স্কুলের অধ্যক্ষা। গহনা নিজেও পড়াশোনায় খুব মনোযোগী ছিলেন। তিনি কম্পিউটার ইঞ্জিনিয়ার। তবে পেশা হিসাবে বেছে নেননি ইঞ্জিনিয়ারিং। বালাজি প্রোডাকশনের ‘গন্দি বাত’ ওয়েব সিরিজে অভিনয় করে বেশ পরিচিতি পান তিনি। এ ছাড়া বিভিন্ন টিভি চ্যানেলে সঞ্চালকের ভূমিকাতেও দেখা গিয়েছে তাকে। অভিনয় করেছেন বেশ কিছু তামিল এবং তেলুগু ছবিতেও।

২০১২-র ‘মিস এশিয়া বিকিনি’ প্রতিযোগিতায় প্রথম হয়েছিলেন গহনা। তারপর প্রচুর নামী সংস্থার মডেল হয়েও কাজ করেছেন।বেশ কিছু বিজ্ঞাপনেও দেখা গিয়েছে তাঁকে। ইন্ডাস্ট্রিতে কর্মজীবন শুরু করেছিলেন টেলিভিশনে অভিনয় করেই।

এরপর কিছু হিন্দি ছবিতেও দেখা গিয়েছে তাকে। কিন্তু এখনো পর্যন্ত তার কোনে হিন্দি ছবি সেভাবে সফল হয়নি। তবে ওয়েব সিরিজের অত্যন্ত পরিচিত মুখ তিনি।

২০১৯ সালে এক ওয়েব সিরিজে অভিনয় করার সময় অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন। হৃদ্‌রোগে আক্রান্ত হয়েছিলেন তিনি। শ্যুটিং ফ্লোরে টানা ৪৮ ঘণ্টা অক্লান্ত পরিশ্রমের ফলেই এমন ঘটেছিলো। তার শারীরিক অবস্থা অত্যন্ত আশঙ্কাজনক হয়ে গিয়েছিল। তাকে ভেন্টিলেশনেও রাখতে হয়েছিলো।

মুম্বাইয়ে ওই ওয়েব সিরিজের শ্যুটিং করার সময় তিনি দু’দিন ধরে ‘এনার্জি ড্রিঙ্কস’ ছাড়া অন্য কিছু খাননি। ঠিকঠাক বিশ্রাম নেওয়ারও সুযোগ পাননি। মূলত অত্যধিক স্ট্রেস থেকেই তিনি হৃদ্‌রোগে আক্রান্ত হন বলে জানিয়েছিলেন চিকিৎসকেরা।

সম্প্রতি আরো একটি কারণে সংবাদের শিরোনামে উঠে এসেছে তার নাম। প র্ন ভিডিও বানানোর জন্য তাকে মুম্বাই পুলিশ গ্রেপ্তার করেছে।

গহনার বিরুদ্ধে অভিযোগ, তিনি নাকি ছবির দুনিয়ায় কাজের জন্য আসা নতুন এবং পরিশ্রমী অভিনেতা-অভিনেত্রীদের টাকার লোভ দেখাতেন।

তাদের প্রতি প র্ন ভিডিওয় ১৫ থেকে ২০ হাজার করে টাকাও পারিশ্রমিক দিতেন গহনা। তারপর সেই ভিডিও বিভিন্ন নেট মাধ্যমে বিক্রি করে উপার্জন করতেন। সূত্র: আনন্দবাজার পত্রিকা।