করোনা আক্রান্ত প্রবীণ নেতা ফারুকের জন্য দোয়া চাইলেন হুইপ স্বপন

আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন: বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি থাকা কালে নব্বই দশকে টাঙ্গাইলের নাগরপুর সরকারী কলেজে অনুষ্ঠিত এক ছাত্রসমাবেশে প্রখ্যাত আমেরিকান ঔপন্যাসিক আর্নেস্ট হেমিংওয়ের বিখ্যাত উক্তি ‘”But man is not made for defeat. A man can be destroyed but not defeated.” – কোট করে একটি বক্তৃতা করেছিলাম। বক্তৃতা শেষ করার পর অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি টাঙ্গাইল জেলা আওয়ামী লীগের তৎকালিন সাধারন সম্পাদক জনাব ফজলুর রহমান ফারুক আমাকে অনেক আদর করে প্রাণভরে দোয়া করেছিলেন।

এরপরও একাধিকবার বীরভূমি টাঙ্গাইলে রাজনৈতিক বিভিন্ন কর্মসূচীতে যোগদান করার সৌভাগ্য হয়েছে। ক্ষমতাহীন সময়ে ফজলুর রহমান ফারুক ভাইয়ের বাড়িতে সস্নেহে দুপুরের খাবার খেয়েছি।

তেপান্ন বছর বয়সেও আমার তারুণ্যে ফারুক ভাইয়ের পিতৃসূলভ আদর-স্নেহ ভুলতে পারি না। তারা যেমন ছাত্রলীগ কর্মীদের স্নেহ করেছেন, আদর করেছেন, তার বিন্দুমাত্রও আমরা পরবর্তী প্রজন্মকে করতে পারি না।
জনাব ফজলুর রহমান ফারুক জাতির পিতার স্নেহের পরশে ছাত্রলীগ করেছেন। উত্তাল ষাটের দশকে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সহ সাধারন সম্পাদক ছিলেন। সত্তর সালে নির্বাচিত হয়ে বাংলাদেশের গণপরিষদ সদস্য হিসেবে সংবিধানে স্বাক্ষর করেছেন, তিয়াত্তর সালে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন। টাঙ্গাইল জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক, সাধারন সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করে আজ তিনি জেলা সভাপতি হিসেবে শত নেতার জেলা বিশাল টাঙ্গাইলের রাজনৈতিক অভিভাবকের পর্যায়ে উন্নীত।

ধর্ণাঢ্য পরিবারের সন্তান ফারুক সাহেব বহু চড়াই-উৎড়াই পার করেছেন। পিতার রেখে যাওয়া সম্পদ নষ্ট করেছেন। জুলুম সহ্য করেছেন, রাজনীতিতে অপ্রাপ্তির দীর্ঘশ্বাস আছে। স্বৈরাচারের বহু লোভনীয় প্রস্তাব উপেক্ষা করে সংগ্রামের বন্ধুর পথে আজীবন ব্রত থেকেছেন। নীতি, আদর্শ এবং নেতা বঙ্গবন্ধু-কন্যার প্রতি অবিচল থেকে দৃঢ় পদক্ষেপে এগিয়ে চলেছেন। বারবার জীবনের ঝুঁকি নিয়ে অবিচল থেকেছেন রাজনীতির প্রতি।

আজ তিনি করোনা পজিটিভ। মহান রাব্বুল আ’লামীনের পবিত্রতম দরবারে অবনত চিত্তে প্রার্থনা করছি, হে রহমানুর রাহীম তুমি ভূমি রাজনীতির সিংহপুরুষ ফারুক ভাইকে পরিপূর্ণ সুস্থ করে মানুষের জন্য আরো মহৎ কাজ করার সুযোগ দাও। আমীন।

(লেখক জাতীয় সংসদের হুইপ ও বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক)


জুমবাংলানিউজ/এইচএম