Views: 27

আন্তর্জাতিক ধর্ম

কানাডায় মুসলিম পরিবার হত্যা, চলছে শোক ও প্রতিবাদ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: এক মুসলিম পরিবারের চারজনকে হত্যা করার ঘটনায় ক্যানাডা এখন শোকাচ্ছন্ন৷ প্রধানমন্ত্রী ট্রুডো হত্যাকাণ্ডের তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন৷ সমাজের সব স্তরের মানুষদের মতো তিনিও শোক জানিয়েছেন ঘটনাস্থলে গিয়ে ৷ খবর ডয়চে ভেলের।

শোকের ছায়ায় ওন্টারিও
রোববার ক্যানাডার ওন্টারিও প্রদেশের লন্ডন শহরে একটি মুসলিম পরিবারের পাঁচ সদস্যের ওপর এক ব্যক্তি পিকআপ ট্রাক তুলে দেয়৷ ট্রাকে চাপা পড়ে চারজন মারা যায়৷ পুলিশ মনে করে, এটি পূর্বপরিকল্পিত হামলা। ছবিতে ঘটনাস্থলে গিয়ে নিহতদের স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা ও হত্যাকাণ্ডের নিন্দা জানানোর সময় নিজের মেয়েদের সঙ্গে কথা বলছেন স্থানীয় বাসিন্দা কায়রা স্টেফানি৷

প্রধানমন্ত্রীর শোক
ঘটনার পরই নাথানিয়েল ভেলটম্যান নামের এক ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ৷ ২০ বছর বয়সি ভেলটম্যান লন্ডনের বাসিন্দা৷ তার বিরুদ্ধে হত্যা ও হত্যাচেষ্টার অভিযোগ আনা হয়েছে। ওপরের ছবিতে ওন্টারিওর লন্ডন শহরের মসজিদের সামনে ফুল দিয়ে নিহতদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাচ্ছেন ক্যানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো৷

শোকের জনস্রোত
নাথানিয়েল ভেলটম্যানকে ইতিমধ্যে রিমান্ডে নেয়া হয়েছে। রিমান্ড শেষে বৃহস্পতিবার তাকে আদালতে হাজির করা হবে। ছবিতে ওন্টারিও প্রদেশের লন্ডন শহরে ঘটনায় নিন্দা ও শোক জানাতে আসা মানুষের স্রোত৷

ঘৃণার কথাও নিষিদ্ধ হোক…
ঘটনার পর লন্ডন পুলিশের গোয়েন্দা কর্মকর্তা পল ওয়েইট বলেন, ‘‘আমরা মনে করি, নিহতরা ইসলাম ধর্মে বিশ্বাসী ছিলেন বলেই তাদের ওপর হামলা চালানো হয়েছে৷’’ ছবিতে লন্ডনের শোকসভায় এক শোকাচ্ছন্নের হাতের প্ল্যাকার্ডে লেখা, ‘‘ইসলামের প্রতি ভীতি ছড়ানোর মতো কথা মুসলিমদের প্রতি ঘৃণাকে উসকে দেয়৷’’ অর্থাৎ, তিনি মনে করেন, সমাজে ঘৃণার আবহ তৈরি না হলে এমন ঘটনা ঘটতো না৷

শিশুর শোক
লন্ডন ফ্রি প্রেস জানিয়েছে, রোববারের ঘটনায় সৈয়দ আফজাল (৪৪), তার স্ত্রী মাদিহা সালমান (৪৪) এবং তাদের ১৫ বছর বয়সি মেয়ে ইয়ুমনা আফজাল আর সৈয়দ আফজালের ৭৪ বছর বয়সি মা নিহত হন৷ ছবিতে এক শিশুর হাতে ধরা প্ল্যাকার্ড, সেখানে হামলার শিকার মুসলিম পরিবারের নিহত কিশোরীর কথা মনে করে লেখা, ‘‘সে আমার বন্ধু ছিল!’’

ভালোবাসা বাঁচায়, ঘৃণা হত্যা করে…
শোকসভায় নানা ধরনের প্ল্যাকার্ড হাতে একদল শিশু৷ সব প্ল্যাকার্ডে লেখা ভালোবাসার মাহাত্ম আর ঘৃণার ভয়ঙ্কর ক্ষতির কথা৷ একটিতে (বাঁ দিকে সবার ওপরে) লেখা, ‘‘ঘৃণা হত্যা করে৷’’

মসজিদ এখন শোকের মিনার
ঘটনাস্থল থেকে ৫০০ মিটার দূরেই এই মসজিদ৷ মসজিদের দরজার দু’ পাশে ফুল রেখে নিহতদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে যাচ্ছেন স্থানীয়দের অনেকে৷

আরও পড়ুন

হানিমুনের রাতেই স্বামী স্ত্রীকে জানালেন তিনি পুরুষ নন

globalgeek

মহামারির মাঝেই বিশ্বে বাস্তুচ্যুত ৮ কোটি ২০ লাখ মানুষ

Saiful Islam

ব্ল্যাক ফাঙ্গাসে অন্ধ হচ্ছেন রোগীরা

Shamim Reza

মহামারির মধ্যেও উদ্বাস্তু রেকর্ড সংখ্যক মানুষ: ইউএনএইচসিআর

Shamim Reza

ইরান কীভাবে সম্পূর্ণ ভিন্ন রকম একটি ব্যবস্থায় দেশ চলে

Shamim Reza

মিয়ানমারে বিস্ফোরণে উড়ে গেল সেনা বহনকারী ট্রাক, নিহত ৬

Saiful Islam