in

কাশ্মীরে ভারতীয় সেনার হেলিকপ্টার বিধ্বস্ত

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : ভারতীয় সেনার হেলিকপ্টার ভেঙে পড়ল জম্মু ও কাশ্মীরের রঞ্জিত সাগর ড্যামে। মঙ্গলবারের এই ঘটনাকে ঘিরে ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। পরে নেভি লেকের পানি থেকে উদ্ধার করে দুই পাইলট ও একজন যাত্রীর নিথর দেহ।

কাঠুয়ার এসএসপি রমেশ কোতোয়াল বলেন, ‘স্থানীয় বাসিন্দাদের মতে, সকাল ১০টা ৪৩ মিনিট নাগাদ চপারটি ড্যামের উপর ভেঙে পড়ে। প্রাথমিকভাবে মনে হচ্ছে, এটি সেনাবাহিনীর চপার। ’

স্থানীয় সূত্রে খবর, এটি আদতে হালকা ধরনের একটি হেলিকপ্টার। নাম দেওয়া হয়েছে ধ্রুব। বাশলি এলাকা দিয়ে যাওয়ার সময় এটি ভেঙে পড়ে। রুটিন মেনে এটি এদিন মামুন ক্যানটনমেন্ট এলাকায় থেকে উড়েছিল। স্থানীয়দের দাবি, চপারগুলি সাধারণত একটি পাইপকে ড্যামের ওপর ঝুলিয়ে দেয়। এদিনও তেমনটাই করছিল। আর তখনই আচমকা ভেঙে পড়ল চপারটি।

সন্ধ্যায় চিনুক বলে অপর একটি চপারকেও উদ্ধারকাজে লাগানো হয়। নেভির প্রশিক্ষিত বাহিনী উদ্ধারে নামে। এসএসপি জানিয়েছেন, ‘ডুবুরিদেরও পানিতে নামানো হয়েছে। তবে লেক থেকে কিছু ভাসমান অবশিষ্ট অংশ পাওয়া গিয়েছে। পুরো ধ্বংসাবশেষ উদ্ধারে সময় লাগবে। লেকটি প্রায় ২০০-২৫০ ফুট গভীর। সেনার স্পেশাল ফোর্স, ডুবুরিদের নামানো হয়েছে। কিন্তু পানি একেবারেই স্বচ্ছ নয়।’ সেনার অ্যাম্বুল্যান্স, দুটি হেলিকপ্টার, সেনা কর্মকর্তারা ঘটনাস্থলে রয়েছেন।

এদিকে পঞ্জাবের পাঠানকোটের এসপি ফোনে জানিয়েছেন, ‘আর্মির একটি হেলিকপ্টার লেকের জলে ভেঙে পড়েছে বলে খবর পেয়েছি। আমাদের টিমও ঘটনাস্থলে গেছে।’

প্রসঙ্গত, পাঠানকোট থেকে এটি প্রায় ৩০ কিলোমিটার দূরে রয়েছে। এদিন খবর পাওয়া যায় নেভির তরফে ব্যাপক তল্লাশি চালানো হয় লেকের পানিতে। এরপর দুজন পাইলট ও এক যাত্রীর দেহ উদ্ধার করা হয়েছে। ফুয়েল ট্যাঙ্ক, স্টেবিলাইজার, হেলমেট, একজন পাইলটের পরিচয়পত্র পাওয়া গেছে।

সূত্র : হিন্দুস্তান টাইমস

অনলাইনে খুব সহজে টাকা ইনকাম করার উপায়