অপরাধ-দুর্নীতি জাতীয় বিভাগীয় সংবাদ

কোচিং সেন্টারে ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে শিক্ষক গ্রেফতার

জুমবাংলা ডেস্ক : নেত্রকোনার কেন্দুয়া উপজেলার গন্ডা ইউনিয়নের গন্ডা গ্রামের স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে শিক্ষক আকবর আলীকে রবিবার সন্ধ্যার গ্রেফতার করা হয়েছে। তার বাড়ি উপজেলার সান্দিকোনা ইউনিয়নের বাঘবেড় গ্রামে। তার বাবার নাম আলী হোসেন।


গ্রেফতারকৃত শিক্ষক আকবর আলী গড়াডোবা একটি কারিগরি স্কুলে কর্মরত থাকার পাশাপাশি সান্দিকোনা ইউনিয়নের মডেল বাজারে কোচিং সেন্টারে পাঠদান করে আসছিলেন। শনিবার বিকালে ওই ছাত্রীকে মোবাইল ফোনে জানায় রবিবার সকাল সাড়ে ৬টার দিকে মডেল বাজার কোচিং সেন্টারে আসার জন্য। অপর দিকে ওই কোচিং সেন্টারের অন্যান্য ছাত্র-ছাত্রীদেরকে জানান, তিনি সকালে অন্যত্র বেড়াতে যাবেন তাই কোচিং সেন্টারে আসার প্রয়োজন নেই। ছাত্রীটি শিক্ষকের মোবাইল ফোনের আহ্বানে সরল বিশ্বাসে নিজ বাড়ি থেকে সাইকেল চালিয়ে কোচিং সেন্টারে এসে দেখে অন্য কোন ছাত্র-ছাত্রী নেই।তখন শিক্ষক আকবর আলীকে অন্য ছাত্র-ছাত্রীদের কথা জিজ্ঞাস করলে তিনি জানান, অন্য ছাত্র-ছাত্রীরা পরে আসবে। এ কথা বলার পর আকবর আলী কোচিং সেন্টারের বাইরে থেকে ওই ছাত্রীর বাইসাইকেলটি ঘরের ভিতর নিয়ে আসে। তার পর কোচিং সেন্টারের পাঠদান রুমের পাশে একটি কম্পিউটার রুমে ছাত্রীকে ডেকে নিয়ে তার ইচ্ছার বিরুদ্ধেজোরপূর্বক ধর্ষণ করে। স্থানীয় লোকজন ওই ছাত্রীকে উদ্ধার করে।

এ ঘটনার খবর পেয়ে পুলিশ পলাতক আকবর আলীকে গ্রেফতার করে। এ ঘটনায় ওই ছাত্রী নিজেই বাদী হয়ে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে কেন্দুয়া থানায় একটি মামলা দায়ের করে। কেন্দুয়া থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ রাশেদুজ্জামান জানান, ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে শিক্ষক আকবর আলীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এ ঘটনার সঙ্গে আরো কেউ জড়িত আছে কিনা সে ব্যাপারে তদন্ত চলছে।


যাদের বাচ্চা আছে, এই এক গেইমে আপনার বাচ্চার লেখাপড়া শুরু এবং শেষ হবে খারাপ গেইমের প্রতি আসক্তিও।ডাউনলোডকরুন : http://bit.ly/2FQWuTP


আরও পড়ুন

প্রেমের ফাঁদে ফেলে পুরুষদের সর্বনাশ, আটক ৩

Shamim Reza

শ্বশুরের কাছে পাওনা টাকা চাওয়ায় ১৬ দিন ধরে শিকলবন্দী জামাই

Shamim Reza

বাবা হারিয়ে বাবা পেলেন শিপলু

Shamim Reza

নতুন প্রজ্ঞাপন জারি : গণপরিবহনসহ যেসব বিষয়ে নতুন আদেশ

rony

সেতু থেকে লাফিয়ে স্ত্রীর চোখের সামনেই স্বামীর আত্মহত্যা

rony

বাবার কাঁধে কন্যার লাশ!

globalgeek