Coronavirus (করোনাভাইরাস) ক্যাম্পাস জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি

কোয়ারেন্টাইনে থাকাদের নিয়ন্ত্রণে ৫ তরুণের অ্যাপ

মোবাইল
প্রতীকী ছবি

হাবিবুল হাসান, ইউএনবি: বিশ্বব্যাপী মহামারি আকার ধারণ করেছে করোনাভাইরাস। পৃথিবীর অনেক দেশকেই পরিস্থিতি মোকাবিলায় হিমশিম খেতে হচ্ছে।

বাংলাদেশে করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব নিয়ন্ত্রণে সরকারের উদ্বেগের সবচেয়ে বড় কারণ হলো বিদেশফেরত প্রবাসীরা। যাদের বাধ্যতামূলকভাবে ১৪ দিনের কোয়ারেন্টাইনে থাকার কথা থাকলেও অনেকেই তা মানছেন না। এমন পরিস্থিতিতে কোয়ারেন্টাইনে থাকা ব্যক্তিদের নিয়ন্ত্রণে দেশের পাঁচ তরুণ তৈরি করেছেন ‘কোয়ারেন্টাইন ট্র্যাকার’ অ্যাপস।

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগ থেকে পাস করা অরূপ গোলদার ধ্রুব, কম্পিউটার বিজ্ঞান (সিএসই) থেকে পাস করা নাঈম রেজা ও সাকিব হাসান সৌর এবং সিলেটের শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (শাবিপ্রবি) কম্পিউটার বিজ্ঞান বিভাগ থেকে পাশ করা ধ্বনঞ্জয় বিশ্বাস ও ফয়সাল আহমেদ শুভ এই অ্যাপসটি তৈরি করেছে।

অ্যাপটির নির্মাতারা জানান, কোয়ারেন্টাইন ট্র্যাকারের মাধ্যমে ট্র্যাকিং এমন একটি সিস্টেম যা সরকারকে সাহায্য করবে কোয়ারেন্টাইন ব্যক্তিকে (যে কোন সংখ্যার) ট্র্যাক করতে। এই ট্র্যাকিং অ্যাপসে জিপিএস এবং ফেইস ডিটেকশন প্রযুক্তি ব্যবহার করা হয়েছে। এর আগে চীনা এবং কোরিয়ানরা এই প্রযুক্তির প্রয়োগের মাধ্যমে পরিস্থিতি মোকাবিলায় বেশ সাহায্য পেয়েছে।

এ বিষয়ে দল নেতা সাকিব হাসান সৌর ইউএনবিকে বলেন, ‘করোনাভাইরাস নিয়ন্ত্রণে এখন পর্যন্ত সফল চীন, দক্ষিণ কোরিয়া, তাইওয়ান ও সিঙ্গাপুরের মতো দেশগুলো সফল হয়েছে। তাদের কার্যকলাপ এবং কিভাবে তারা পুরো বিষয়টি করেছে সেদিকে যদি লক্ষ্য করি তাহলে একটি বিষয় খুবই পরিষ্কার যে তারা সফলভাবে বড় পরিসরে কোয়ারেন্টাইন প্রোগ্রাম চালাতে পেরেছে এবং তার জন্যে তারা প্রযুক্তির সহায়তা নিয়েছে।’

তিনি আরও বলেন, ‘বর্তমানে আমাদের এখানে কিছু সংখ্যক মানুষকে কোয়ারেন্টাইন অবস্থায় আছেন, যাদের ম্যানুয়ালি ট্র্যাক করা খুবই সহজ। কিন্তু যদি আমরা সেটা বড় পরিসরে করতে চাই, সেক্ষেত্রে এরকম ম্যানুয়াল প্রোসেস দিয়ে পুরো বিষয়টিকে সফলভাবে চালনা করা প্রায় অসম্ভব। এক্ষেত্রে আমাদের কোয়ারেন্টাইন ট্র্যাকিং সিস্টেম অ্যাপ বড় পরিসরে কোয়ারেন্টাইনে থাকা ব্যক্তিদের ট্র্যাক করতে সহায়তা করবে।’

‘কোয়ারেন্টাইন ট্র্যাকার’ অ্যাপসে জিপিএস/ফেইস ডিটেকশন প্রযুক্তিসহ ব্যবহার করা হয়েছে জানিয়ে তিনি বলেন, ‘আমরা সরকারের সহযোগিতা কামনা করছি এবং আশা করছি এই সিস্টেম ব্যবহার করে পরিস্থিতি মোকাবিলায় তারা আরও জড়ালো ভূমিকা রাখবে।’

একই পদ্ধতিতে বিষয়টি সবার জন্য উন্মুক্ত করে দেয়ার কথাও ভাবা হচ্ছে জানিয়ে বুয়েট শিক্ষার্থী সৌর বলেন, ‘সাধারণ মানুষ তাদের পরিবার-পরিজনদের (যারা হয়তো দূরে থাকেন কিংবা করোনাভাইরাস নিয়ে ততটা সচেতন নন) ট্র্যাক করতে পারবে, যাতে তারা হোম-কোয়ারেন্টাইন অবস্থায় থাকেন।’

‘আমরা কয়েকজন সহকর্মী ও বন্ধুরা মিলে এই সিস্টেম ডেভলপ করার পেছনে কাজ করছি; আমাদের মূল উদ্দেশ্য আমাদের প্রযুক্তিগত জ্ঞানের মাধ্যমে কমিউনিটিকে সাপোর্ট দেয়া,’ যোগ করেন তিনি।

প্রসঙ্গত, বাংলাদেশে সোমবার পর্যন্ত করোনাভাইরাসে ৩৩ জন আক্রান্তের তথ্য জানিয়েছে সরকার। যাদের মধ্যে তিনজনের মৃত্যু হয়েছে এবং পাঁচজন সুস্থ হয়েছেন।

বৈশ্বিক মহামারি ‍করোনাভাইরাসে (কোভিড-১৯) আক্রান্ত হয়ে মঙ্গলবার পর্যন্ত বিশ্বজুড়ে প্রাণহানির সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৬ হাজার ৫১৫ জনে।

বিশ্বব্যাপী করোনাভাইরাসের সর্বশেষ পরিসংখ্যান জানার ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডোমিটারের তথ্য অনুযায়ী, নভেল করোনাভাইরাসে এ পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছেন বিশ্বের ৩ লাখ ৭৮ হাজার ৯৬৫ জন। এদের মধ্যে বর্তমানে ২ লাখ ৬০ হাজার ৩৮১ জন চিকিৎসাধীন এবং ১২ হাজার ৬২ জন আশঙ্কাজনক অবস্থায় রয়েছেন। এছাড়া করোনাভাইরাস আক্রান্ত ১ লাখ ১৮ হাজার ৫৮৪ জনের মধ্যে ১ লাখ ২ হাজার ৬৯ জন (৮৬ শতাংশ) সুস্থ হয়ে উঠেছেন এবং ১৬ হাজার ৫১৫ জন (১৪ শতাংশ) রোগী মারা গেছেন।

বাংলাদেশসহ বিশ্বের ১৯৫টি দেশ ও অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়েছে প্রাণঘাতি করোনাভাইরাস।


আরও পড়ুন

বসুন্ধরায় দুই হাজার বেডের করোনা আইসোলেশন হবে : স্বাস্থ্যমন্ত্রী

Shamim Reza

যেভাবে ছড়াচ্ছে করোনা জানালেন ডা. ফ্লোরা

Shamim Reza

করোনা নিয়ে চীনে নতুন করে দুঃসংবাদ

globalgeek

করোনায় বাংলাদেশি আরেক চিকিৎসকের মৃত্যু

Shamim Reza

করোনার কিট সরবরাহ নিয়ে যে সুখবর দিলেন জাফরুল্লাহ চৌধুরী

rony

ইতালির করোনা রোগীর জন্য যা করলেন নার্সরা

Shamim Reza