নাভালনির সংগঠনগুলোকে ‘চরমপন্থী’ হিসেবে ঘোষণা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: রাশিয়ায় ক্রেমলিন সমালোচক কারাবন্দী আলেক্সি নাভালনির সংগঠনগুলোকে ‘চরমপন্থী’ হিসেবে ঘোষণা করেছে মস্কোর একটি আদালত। একইসঙ্গে রাশিয়ায় সংগঠনগুলোর সকল কার্যক্রমও নিষিদ্ধ করা হয়েছে।

সংসদ নির্বাচনের আগে বিরোধীদের জন্য একে আবারো একটি বড় আঘাত হিসেবে বিবেচনা করা হচ্ছে।

আদালতের সামনে কৌঁসুলিদের মুখপাত্র আলেক্সি জাফইয়ারভ বলেন, আদালত দেখতে পেয়েছে যে এসব সংগঠন থেকে সরকারি কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে কেবল ঘৃণা ও শত্রুতাই ছড়ানো হচ্ছিল না, বরং উগ্রবাদী কর্মকান্ডও চালানো হচ্ছিল।

এদিকে রুদ্ধদ্বার কক্ষে ১২ ঘন্টার শুনানী শেষে মস্কো সিটি আদালত সাংবাদিকদের কাছে বিতরণ করা এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, বিচারকদের এই সিদ্ধান্ত অবিলম্বে কার্যকর হবে।

জার্মানীতে চিকিৎসা শেষে চলতি বছর জানুয়ারিতে রাশিয়ায় ফেরার পর নাভালনিকে(৪৫) কারাদন্ড দেয়া হয়। এর আগে তাকে বিষপ্রয়োগে হত্যারও চেষ্টা করা হয়।

এ রায়ের পর নাভালনি তার লড়াই অব্যাহত রাখার অঙ্গীকার করেছেন।

তবে এক ইনস্ট্রগ্রাম পোস্টে তিনি স্বীকার করেন কিভাবে তার সমর্থকরা কাজ করবেন সে বিষয়ে পরিবর্তন আনতে হবে এবং পরিবর্তিত পরিস্থিতির সাথে খাপ খাওয়াতে তিনি তাদের প্রতি আহ্বান জানান।

তিনি আরো বলেন, আমরা পিছু হটবো না। এটি আমাদেরই দেশ। আমাদের আর কোন দেশ নেই।

উল্লেখ্য, এপ্রিলে কৌঁসুলিরা নাভালনির রাজনৈতিক গোষ্ঠী ও দুর্নীতিবিরোধী ফাউন্ডেশনকে চরমপন্থী হিসেবে ঘোষণার অনুরোধ জানিয়েছিল। কারণ হিসেবে তারা বলেছে এসব সংগঠন পশ্চিমাদের সমর্থনে বিদ্রোহ করার পরিকল্পনা করছে।

এদিকে নাভালনির পক্ষের আইনজীবীরা প্রকাশ্যে শুনানি এবং নাভালনিকে সাক্ষী হিসেবে উপস্থিত রাখার অনুরোধ জানিয়েছিল। কিন্ত তাদের এ অনুরোধ বাতিল করে দেয়া হয়েছে।

এ রায়ের বিরুদ্ধে তারা আপীল করবেন বলে জানিয়েছেন। সূত্র: বাসস


জুমবাংলানিউজ/একেএ