ক্রোয়েশিয়াকে হারিয়ে মধুর প্রতিশোধ নিল ইংল্যান্ড

স্পোর্টস ডেস্ক: ক্রোয়েশিয়াকে ১-০ গোলে পরাজিত করে জয় দিয়ে ইউরো অভিযান শুরু করেছে ফেবারিট ইংল্যান্ড। লন্ডনের ওয়েম্বলি স্টেডিয়ামে ৫৭ মিনিটে জয়সূচক গোলটি করে ম্যানচেস্টার সিটি ফরোয়ার্ড রাহিম স্টার্লিং।

২৬ বছর বয়সী এই স্ট্রাইকারের গোলে আগে গ্যারেথ সাউগেটের দলকে ক্রোয়েশিয়ার শক্তিশালী রক্ষনভাগকে ভাঙ্গতে বেশ হিমশিম খেতে হয়েছে। বড় কোন টুর্নামেন্টে এটাই স্টার্লিংয়ের প্রথম গোল। জ্যাক গ্রীলিষের পরিবর্তে তাকে দলে নেয়া নিয়ে সাউথগেটকে বেশ সমালোচনার মুখে পড়তে হয়েছে। কিন্তু এই গোলের মাধ্যমে অন্তত সমালোচকদের মুখ বন্ধ করার পাশাপাশী কোচের আস্থারও প্রতিদান দিয়েছেন স্টার্লিং। ২০১৬ সালের ইউরোতে ইংলিশ সমর্থকদের আস্থা অর্জন করতে পারেননি এই স্ট্রাইকার। এবারের মৌসুমে প্রিমিয়ার লিগ চ্যাম্পিয়ন ম্যানচেস্টার সিটির হয়েও নিজেকে প্রমানে ব্যর্থ হয়েছেন। বিশেষ করে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ফাইনালে চেলসির বিপক্ষে ফাইনালে দলের ব্যর্থতার পিছনে তাকেও দায়ী করা যায়।

২০১৮ সালের সেমিফাইনালে ইংল্যান্ডকে অনেকটাই হেসেখেলেই ২-১ গোলে পরাজিত করে বিদায় করেছিল ক্রোয়েশিয়া। কালকের ম্যাচে জয়ের মাধ্যমে ইংল্যান্ড সেই দু:সহ স্মৃতি থেকে বেরিয়ে আসলো, একইসাথে মধুর প্রতিশোধও তুলে নিল। ইউরো ৯৬’র এর আয়োজক হিসেবে সেমিফাইনালে খেলা এবং ১৯৬৬ সালের বিশ্বকাপে একমাত্র শিরোপা জেতার পর দীর্ঘদিন কোন বড় টুর্ণামেন্টে জেতা হয়নি ইংল্যান্ডের। কালকের ম্যাচের মাধ্যমে ইংল্যান্ড যেমন ঘরের মাঠে বৈশ্বিক মহামারী কাটিয়ে পুনরায় ফুটবলকে স্বাগত জানিয়েছে, তেমনই ফেবারিট হিসেবে জয়ের মাধ্যমে টুর্ণামেন্টের সূচনা করে ভক্তদের প্রত্যাশার জবাবও দিয়েছে।

যদিও একথা সত্যি যে প্রত্যাশার শতভাগ প্রমান করতে পারেনি সাউথগেট শিষ্যরা। কিন্তু তারপরেও বড় আসরে সমর্থকদের চাপ সামলে জয় দিয়ে টুর্ণামেন্ট শুরু করাটাও স্বস্তি বলেই মনে করেন ইংলিশ কোচ।

শুক্রবার গ্রুপ-ডি’র নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে প্রতিবেশী স্কটল্যান্ডকে আতিথ্য দিবে ইংল্যান্ড। এরপর আগামী ২২ জুন গ্রুপ পর্বের শেষ ম্যাচে চেক প্রজাতন্ত্রের বিপক্ষে লড়াইয়ে নামবে।

মধ্যমাঠে ২৫ বছর বয়সী লিডস মিডফিল্ডার কালভিন ফিলিপসকে মূল দলে নামানো ছিল সাউথগেটের সাহসী সিদ্ধান্ত। কিন্তু মধ্যমাঠে স্টার্লিংয়ের সাথে বেশ ভালই মানিয়ে নিয়েছিলেন এই মিডফিল্ডার।

স্টার্লিংয়ের পাস থেকে ম্যানচেস্টার সিটি ফরোয়ার্ড ফিল ফোডেন ষষ্ঠ মিনিটে অল্পের জন্য দলকে এগিয়ে দিতে ব্যর্থ হন। ফিলিপসের শট কোনমতে আটকে দেন ক্রোয়েট গোলরক্ষক ডোমিনিক লিভাকোভিচ। হ্যারি কেনের সাথে আক্রমনভাগে সাউথগেট কাল মাঠে নামিয়েছিলেন ফোডেন, স্টার্লিং ও ম্যাসন মাউন্টকে। কিন্তু প্রথমার্ধে এই চারজন স্বাগতিকদের কোন সুখবর দিতে পারেননি।

দ্বিতীয়ার্ধে সমর্থকরা এ্যাস্টন ভিলার প্লেমেকার গ্রীলিশকে মাঠে দেখার আগ্রহ প্রকাশ করতে থাকে। যদিও ৫৭ মিনিটে স্টার্লিংয়ের গোলে ইংল্যান্ড যখন এগিয়ে যায় তখন সমর্থকদের পাশাপাশি স্বাগতিক শিবিরে স্বস্তি ফিরে আসে। দুজন ক্রোয়েট ডিফেন্ডারকে পাশ কাটিয়ে ফিলিপস বল বাড়িয়ে দেন স্টালিংয়ের দিকে। লো শটে ১০ গজ দুর থেকে স্টার্লিং বল জালে জড়ান।

ইনজুরির কারনে হ্যারি ম্যাগুয়েরে, টাইরোন মিংস ও জন স্টোনসের অনুপস্থিতিতে শেষ পর্যন্ত এই জয় ধরে রাখতে ইংল্যান্ডের সেন্টার ব্যাকদের বেশ বেগ পেতে হয়েছে। সূত্র: বাসস

আজকের জনপ্রিয়:
>> আয়ু কমে যাওয়ার ৭ কারণ
>> সন্তানদের যে আমলের অভ্যাস করানো জরুরি
>> ছেলেদের যে বিষয়গুলো মেয়েরা সবার আগে খেয়াল করে


Share:





জুমবাংলানিউজ/একেএ