খুলনা বিভাগীয় সংবাদ

গাছের সাথে বেঁধে গৃহবধূকে মধ্যযুগীয় কায়দায় নির্যাতন

জুমবাংলা ডেস্ক : সাতক্ষীরার কালিগঞ্জে উপজেলার ধলবাড়ীয়া ইউনিয়নের বলারহুলা গ্রামে জমি সংক্রান্ত বিরোধের জেরে এক গৃহবধূকে গলা ও পায়ে রশি দিয়ে গাছের সাথে বেধে মধ্যযুগীয় কায়দায় নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছে। গৃহবধূর নাম মাহমুদা খাতুন শিলু (৪০)। মারাত্মক আহতাবস্থায় ওই গৃহবধূ কালিগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

স্থানীয়রা জানান, শিলু ও একই এলাকার হামিদ সরদারের ছেলে বারেক সরদারের মধ্যে জমি সংক্রান্ত বিরোধ চলছিল। জমিতে ঘেরা দিতে গেলে বারেক সরদার শিলুকে বাঁধা দেয়। এসময় দুজনের মধ্যে কথা কাটাকটি হয়। একপর্যায়ে বারেক সরদার, তার ভাই মহাসিন ও হানিফ সরদার শিলুকে বেধড়ক মারপিট করে। এরপর তিন ভাই শিলুকে গলা ও পায়ে রশি দিয়ে বাড়ির উঠানের কদবেল গাছের সাথে বেধে রাখে। পরবর্তীতে স্থানীয় ইউপি সদস্য সাত্তার আলী তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যায়।

স্থানীয় ইউপি সদস্য ছাত্তার আলী বলেন, গন্ডগোলের খবর শুনে আমি সেখানে যেয়ে শিলুকে কদবেল গাছে বাধা অবস্থায় দেখি। এরপর তাকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে পাঠিয়েছিলাম।



জুমবাংলানিউজ/এসআর




আপনি আরও যা পড়তে পারেন


সর্বশেষ সংবাদ