ক্রিকেট (Cricket) খেলাধুলা

গোলাপি ও লাল বলের মধ্যে পার্থক্য

স্পোর্টস ডেস্ক : ২২ নভেম্বর কলকাতার ঐতিহ্যবাহী ইডেন গার্ডেন্সে বসতে চলেছে প্রথম দিবারাত্রির টেস্ট। যেখানে ভারতের প্রতিপক্ষ বাংলাদেশ। গোলাপি বলে সেই টেস্ট ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে। এরআগে টেস্টে লাল বল দিয়ে খেলা হতো। লাল ও গোলাপি বলের মধ্যে পার্থক্য কি তা জেনে নেই।

১। মূল পার্থক্য গোলাপি বল সিম সুতার সেলাই। লাল বলে সাদা নাইলন সুতা ব্যবহার করা হয়। আর গোলাপি বলে নাইলন ও সিনথেটিক কালো দু ধরনের সুতা ব্যবহার হয়। নাইলন শিশির টেনে নেয়। সিম স্পষ্ট হলেও, বাতাসে চোখের অনভ্যস্ততার জন্য কম দেখা যায়। দেখার সুবিধার জন্যই গোলাপি বলের সিম কালো করা হয়েছে। গোলাপি বলে বিশেষ ধাতুর স্তর বা ল্যাকার থাকায় বল চকচক করে তাই দেখার সুবিধা হয়।

২। এসজি বলে সেলাই হয় হাতে। তাই গ্রিপ করা সহজ। স্পিন ধরা সহজ। এই গোলাপি বলে ৪০ ওভারের পর স্পিন ধরবে। গোলাপি বলের সিম বা সেলাই চওড়া বেশি হয় তাই বাউন্স ভালো হয়।

৩। বিশেষ ধরণের লিকারের ব্যবহার হয় বলে গোলাপি বলে শাইন থাকতে পারে ২০/২৫ ওভার পর্যন্ত। শুরুতে তাই বেশিং সুইং হয়। গোলাপি বলে বাড়তি রং করা হয় তাই এটাকে দেখতে কখনও কমলাও মনে হয়।

৪। লাল বলে মোম ব্যবহার করা হয়। যা সময়ে মিশে যায়। তাই লাল বলে এক সাইড শাইন করে রিভার্স সুইং করানো যায়। কিন্তু গোলাপি বলে মোম ব্যবহার করা হয় না। তাই এই বলে রিভার্স সুইং করা খুবই টাফ।

৫. কোকাবুরা বল মেশিনে সেলাই বলে মিহি হয়৷ এজন্য গ্রিপে সমস্যা হয়। এসজির বৈশিষ্ট্য হচ্ছে হাতে সেলাই। এতে এমনিতেই স্পিন বেশি ধরে।

এদিকে আজ প্রথমবারের মতো গোলাপি বলে অনুশীলন করেছে রাসেল ডোমিঙ্গো শিষ্যরা। ম্যাচের আগের দিন কাল বৃহস্পতিবার ফ্লাডলাইটের আলোয় অনুশীলনের সুযোগ পাবেন মুশফিক-মাহমুদউল্লাহরা।

আরও জানা গেছে, মাঝ আকাশে বিমান থেকে ঝাঁপ দিয়ে প্যারাস্যুটে কলকাতার ঐতিহ্যবাহী ইডেন গার্ডেন্সে নেমে আসবেন ভারতীয় সেনাকর্মীরা। এসে ভারত-বাংলাদেশ দুই দলের অধিনায়কের হাতে টেস্ট ম্যাচের গোলাপি বল তুলে দেবেন তারা।



জুমবাংলানিউজ/এসআর




আপনি আরও যা পড়তে পারেন


সর্বশেষ সংবাদ