ক্রিকেট (Cricket) খেলাধুলা

গোলাপি বলে নাজেহাল টাইগাররা

স্পোর্টস ডেস্ক : ইন্দোর টেস্টের ক্ষত ভুলে টাইগাররা এখন ইডেন টেস্টে মনোযোগ দিয়েছেন। ঐতিহাসিক এই টেস্টের অন্যতম আকর্ষণীয় দিক হল গোলাপি বল। প্রথমবারের মত গোলাপি বলে খেলবে টাইগাররা। তাই পুরোদমে এই বলে প্রস্তুতি শুরু করে দিয়েছে মুমিনুল হকরা। কিন্তু বিপত্তি দেখা গিয়েছে এখানেই, গোলাপি বলের সুইং ও বাউন্স সামলাতে নাজেহাল টাইগার ব্যাটসম্যানরা।

অনুশীলনে এবাদত হোসেনের বলের গতি সামলাতে নাকানি চুবানি খেতে হয়েছে মুমিনুল, মুশফিককে। সোমবার অনুশীলনে এবাদত হোসেনের পেসের বেসামাল গতি দিয়েই আন্দাজ করা যায়, এসজি গোলাপি বল একজন পেসারকে কতোটা বিপজ্জনক করে দিতে পারে।

অনুশীলন শেষে টাইগার স্পিনার মেহেদি হাসান মিরাজ সংবাদমাধ্যমকে বলেন, ‘গোলাপি বলে ব্যাট করে মনে হল সুইং ও বাউন্সের পরিমাণ বেশি। লাল বলের তুলনায় এটির গতি একটু বেশিই। নতুন বলে ব্যাটসম্যানদের সতর্ক থাকতে হবে।’

লাল বলের চেয়ে গোলাপি বলের সিম (সেলাই) বেশি পোক্ত ও চওড়া। বল হাতে বোনার পরে আবার র‌ং ও বিশেষ ধাতুর স্তর (ল্যাকার) দিয়ে গোলাপি করে তোলা হয়। বল শুকিয়ে যাওয়ার পরে পালিশের জন্য পড়ে আলাদা স্তর। ফলে বল পুরনো হতে অনেক বেশি সময় লাগে। নতুন বলে সুইং পাওয়া গেলেও পুরনো বলে রিভার্স সুইং পাওয়া কঠিন। তবে সিম ও অতিরিক্ত রংয়ের স্তর থাকায়, সাধারণ লাল বলের চেয়ে কিছুটা গতি ও বাউন্স বেশি থাকে গোলাপি বলের।

উল্লেখ্য, চলতি মাসের ২২ তারিখ ঐতিহাসিক ইডেন টেস্টে ভারতের মোকাবেলা করবে বাংলাদেশ।



জুমবাংলানিউজ/এসআর




আপনি আরও যা পড়তে পারেন


সর্বশেষ সংবাদ