চলে গেলেন ব্যারিস্টার রফিক-উল হক

নিজস্ব প্রতিবেদক: দেশের প্রতিথযশা আইনজীবী সাবেক অ্যাটর্নি জেনারেল ব্যারিস্টার রফিক-উল হক আর নেই (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না  ইলাইহি রাজিউন)। তাঁর বয়স হয়েছিল ৮৬ বছর।

আজ শনিবার (২৪ অক্টোবর) সকাল সাড়ে ৮টায় রাজধানীর  আদ-দ্বীন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেছেন তিনি।

ব্যারিস্টার রফিক-উল হক অসুস্থ হয়ে পড়লে গত ১৫ অক্টোবর সন্ধ্যায় তাকে এই হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এরপর তিনি কিছুটা সুস্থ বোধ করলে গত ১৭ অক্টোবর সকালে পল্টনের বাসায় ফিরে যান। তবে ওইদিনই দুপুরের পর পরই তাকে আবার হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এরপর গত ১৯ অক্টোবর তার করোনা পরীক্ষা করা হয়। করোনা রিপোর্ট নেগেটিভ আসলেও তার শারীরিক অবস্থার অবনতি ঘটে।

এর আগে গত জুনে ডায়াবেটিস কমে যাওয়ায় তার শারীরিক অবস্থার অবনতি হয় এবং তখনও তাকে আদ-দ্বীন হাসপাতালের নিবিড় পর্যবেক্ষণে নেয় হয়। পরে তিনি পল্টনের বাসায় অবস্থান করেই চিকিৎসা নিয়ে সুস্থ হয়ে ওঠেন। তিনি আদ-দ্বীন হাসপাতালের চেয়ারম্যান।

প্রখ্যাত আইনজীবী ব্যারিস্টার রফিক-উল হক ১৯৩৫ সালের ২ নভেম্বর কলকাতার সুবর্ণপুর গ্রামে জন্ম গ্রহণ করেন। তিনি ১৯৯০ সালের ৭ এপ্রিল থেকে একই বছরের ১৭ ডিসেম্বর পর্যন্ত দেশের প্রধান আইন কর্মকর্তা অ্যাটর্নি জেনারেল ছিলেন। তিনি ছিলেন রাষ্ট্রের ষষ্ঠ অ্যাটর্নি জেনারেল।

দেশের দুই নেত্রীর আইনজীবী খ্যাত এই ব্যক্তিত্ব ২০১৭ সালে বাম পায়ের হাটুতে অস্ত্রপচার করান। মূলত এরপর থেকেই চলাফেরা সীমিত হয়ে পড়ে। স্বাভাবিকভাবে চলাফেরা করতে না পারায় ৮৫ বছর বয়স্ক খ্যাতিমান এই মানুষটির দিনের অধিকাংশ সময় কাটে বিছানায় শুয়েই। চলাফেরা করতে হলে হুইল চেয়ার আর ব্যক্তিগত কর্মচারীরাই তার সাথী।


জুমবাংলানিউজ/ জিজি