চীনের বিরুদ্ধে আবারো কড়া পদক্ষেপ ট্রাম্পের

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : যুক্তরাষ্ট্র-চীন বিতর্ক নতুন মাত্রা পেল। হংকংয়ের সঙ্গে অর্থনৈতিক সম্পর্ক বন্ধের কথা ঘোষণা করলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। সম্প্রতি হংকংয়ের আন্দোলন স্তব্ধ করার জন্য বিশেষ ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে চীন।

হংকংয়ে বিশেষ নিরাপত্তা আইন জারি করা হয়েছে। এ ঘটনার জেরে মার্কিন প্রেসিডেন্টের নয়া পদক্ষেপ। ট্রাম্প প্রশাসনের নতুন সিদ্ধান্তের তীব্র নিন্দা জানিয়েছে চীন। যক্তরাষ্ট্রের বিরুদ্ধে পাল্টা ব্যবস্থা নেওয়ারও হুমকি দেওয়া হয়েছে।

গতকাল মঙ্গলবার ট্রাম্প হংকং প্রসঙ্গে বলেন, হংকংয়ের সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের যে বিশেষ বাণিজ্য চুক্তি ছিল, তা তুলে নেওয়া হচ্ছে। যে সমস্ত চীনা সংস্থা, ব্যক্তি, ব্যাংক হংকংয়ের ঘটনায় চীনকে সাহায্য করেছে কিংবা সমর্থন দিয়েছে, তাদের ওপর নিষেধাজ্ঞা।

১৯৯২ সালের আইন অনুযায়ী হংকংয়ের সঙ্গে বিশেষ বাণিজ্য সম্পর্ক ছিল যুক্তরাষ্ট্রের। হংকং চীনের ছত্রছায়াতে থাকলেও তাদের বিশেষ অধিকার ছিল। এক ধরনের স্বাধীনতা ভোগ করত তারা।

চীনের ছত্রছায়াতে থেকেও গণতন্ত্রের আবহ ছিল সেখানে। শুধু তাই নয়, মুক্ত বাণিজ্যের বাজার ছিল। এই বিষয়গুলো মাথায় রেখেই ১৯৯২ সালে যুক্তরাষ্ট্র হংকংয়ের সঙ্গে বিশেষ বাণিজ্য চুক্তি করেছিল।

ডোনাল্ড ট্রাম্পের বক্তব্য, সম্প্রতি হংকংয়ে চীন যে কাজ করেছে, তাকে আগ্রাসন বলা হয়। এর ফলে হংকং যে স্বাধীনতা ভোগ করত, তা আর থাকবে না। বহু মানুষ হংকং ছেড়ে পালিয়ে যাবেন। এ পরিস্থিতিতে হংকংয়ের সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের যে সম্পর্ক ছিল, তা আর রাখা সম্ভব নয়। মার্কিন কংগ্রেসে এর আগেই বিষয়টি তোলা হয়েছিল। মঙ্গলবার ট্রাম্প বিবৃতি দিয়ে নতুন নিয়ম ঘোষণা করেন।

ট্রাম্পের পদক্ষেপের কড়া সমালোচনা করেছে চীন। আজ বুধবার চীন জানিয়েছে, চীনকে অপবাদ দেওয়ার জন্যই এ কাজ করেছে ট্রাম্প প্রশাসন। শুধু তাই নয়, যুক্তরাষ্ট্রের এ কাজকে বিদ্বেষমূলক বলেও মন্তব্য করেছে চীন। তারাও যুক্তরাষ্ট্রের বিরুদ্ধে পাল্টা ব্যবস্থা নেবে বলে হুমকি দিয়ে রেখেছে।

সূত্র : ডয়চেভেলে


জুমবাংলানিউজ/এসআর

অন্যরা যা পড়ছেন:

Add Comment