in ,

জার্মানিতে ই-পাসপোর্টের কার্যক্রম শুরু

জুমবাংলা ডেস্ক : অবশেষে নানা আনুষ্ঠানিকতার মধ্য দিয়ে বহুল প্রতিক্ষিত ই-পাসপোর্টের কার্যক্রম শুরু হলো জার্মানিতেই। রোববার জার্মানির রাজধানী বার্লিনে বাংলাদেশ দূতাবাসে আনুষ্ঠানিকভাবে ই-পাসপোর্ট কার্যক্রমের শুভ উদ্বোধন করেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল।

এ উপলক্ষে সংক্ষিপ্ত এক সভায় মন্ত্রী বলেন, ই-পাসপোর্টের কার্যক্রম শুরুর মাধ্যমে ডিজিটাল বাংলাদেশের আরও একটি স্বপ্ন পূরণ হলো।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সভাপতি হিসেবে বক্তব্য দেন পাসপোর্ট ও ইমিগ্রেশন অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মেজর জেনারেল মো. আইয়ুব চৌধুরী। এসময় তিনি ই-পাসপোর্টের বিস্তারিত আমন্ত্রিত অতিথিদের সামনে তুলে ধরেন।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে রাষ্ট্রদূত মো. মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়া স্বরাষ্ট্র মন্ত্রীর প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়ে বলেন, জার্মানি থেকে ই-পাসপোর্টের কার্যক্রম শুরুর মাধ্যমে অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন হলো।

তিনি আরও বলেন, ই-পাসপোর্টের মাধ্যমে বিশ্বব্যাপী আরও নিরাপদ ও বিশ্বাসযোগ্যতার অধিক তথ্য সংরক্ষণের জন্য অত্যাধুনিক চিপের অন্তর্ভুক্তি, উন্নত নিরাপত্তা বৈশিষ্ট্য, বৈধতার মেয়াদ বৃদ্ধি ও স্মার্ট ইমিগ্রেশনসহ বাংলাদেশকে বিশ্বে উন্নত স্তরে উপাস্থাপন করতে সহযোগিতা করবে।

অনুষ্ঠানে ই-পাসপোর্ট তৈরিতে কারিগরি ও প্রকৌশলগত সমস্ত সহযোগিতা দিতে পেরে খুশি জার্মানির একটি আধা সরকারি প্রতিষ্ঠান ভ্যারিডস।

অনুষ্ঠানে অন্যানদের মধ্যে বক্তব্য দেন সুরক্ষা ও সেবা বিভাগের অতিঃ সচিব আবদুল্লাহ আল মাসুদ চৌধুরীসহ আরও অনেকে। বক্তারা বলেন, ই-পাসপোর্টের কার্যক্রম জার্মানিতে শুরু হলেও ধীরে ধীরে বিশ্বের ৮০টি মিশনে এই কার্যক্রম শুরু করার মহাপরিকল্পনা হাতে নিয়েছে বর্তমান শেখ হাসিনা সরকার। আর ই-পাসপোর্টের সর্বস্তরে পৌঁছে গেলে পাসপোর্ট সংক্রান্ত সমস্ত ঝক্কি-ঝামেলার অনেকটাই কমে আসবে মনে করছেন ইমিগ্রেশন বিশেষজ্ঞরা।

অনুষ্ঠানে দেশের দূতাবাসের কর্মকর্তারা ছাড়াও স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এবং ইমিগ্রেশন ও পাসপোর্ট অধিদপ্তরের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

পরে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামালসহ আগত অতিথিরা দূতাবাসের কন্সুলার প্রধান কাজী তুহিন রসুলের তত্ত্বাবধানে ই-পাসপোর্ট কার্যক্রম ঘুরে দেখেন।

অনলাইনে খুব সহজে টাকা ইনকাম করার উপায়