জাতীয় বিভাগীয় সংবাদ রংপুর

জুতা পায়ে শহীদ মিনারে, অতঃপর সেই অধ্যক্ষকে বিক্ষুব্ধ জনতার গণধোলাই

অনিল চন্দ্র রায়, কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি: জেলার উলিপুর সরকারি ডিগ্রি কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ মো. আবু তাহেরের জুতা পায়ে শহীদ মিনারে ফুল দিয়ে ‘শ্রদ্ধা’ নিবেদন করার ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়লে এলাকায় মিশ্র প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয়েছে।

সোমবার সকালে মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে কলেজ ক্যাম্পাসের শহীদ মিনারে জুতা পায়ে তিনি ‘শ্রদ্ধাঞ্জলি’ দেন। এসময় শহীদ মিনারে জুতা পায়ে পুষ্পস্তবক অর্পণ করে ফটোশেসন করতেও দেখা যায় তাকে।

সহকর্মীরা জুতা খুলেশহীদ মিনারে উঠতে বললেও মো. আবু তাহের জুতা খুলেননি বলে অভিযোগ রয়েছে।

ছবিটি ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়লে এলাকার বিক্ষুব্ধ জনতা দুপুরে ওই অধ্যক্ষকে কলেজ ক্যাম্পাসে গণধোলাই দিয়েছে। তিনি বর্তমানে উলিপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি হয়ে চিকিৎসা নিচ্ছেন বলে নিশ্চিত করেছেন মেডিকেল অফিসার জাকিয়া সুলতানা।

তিনি জানান, আহত ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষের শরীরে কয়েক জায়গায় ফুলা ও জখমের চিহ্ন রয়েছে।

এদিকে,  সোমবার বিকাল ৩টায় উলিপুর উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি রাকিবুল ইসলাম রুবেল ও সাধারণ সম্পাদক রফিকুল ইসলাম রফিকের নের্তৃত্বে অধ্যক্ষকের অপসারণ ও শাস্তির দাবীতে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেন।

অধ্যক্ষ মো. আবু তাহের জুমবাংলা’র কাছে জুতা পায়ে শহীদ মিনারে ফুল দেয়ার কথা স্বীকার করে বলেন, নিজের অজান্তে তিনি জুতা পায়ে শহীদ মিনারে উঠেছিলেন।

উলিপুর পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবু সাঈদ সরকার ক্ষুব্দ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করে অভিযুক্ত অধ্যক্ষের অবিলম্বে অপসারণ ও বিচার দাবি করেন।

কুড়িগ্রাম-৩ আসনের সংসদ সদস্য অধ্যাপক এম এ মতিন বলেন, যারা দেশের স্বাধীনতায় বিশ্বাস করেন না, তাদের কোনো না কোনো কর্মের মধ্য দিয়ে সেই চরিত্রের বহিঃপ্রকাশ ঘটে। এ ঘটনার নিন্দা জানানোর ভাষা আমার নেই। অবশ্যই তার বিরুদ্ধে প্রশাসনিক ব্যবস্থা নেয়া উচিৎ।


জুমবাংলানিউজ/এইচএম




আপনি আরও যা পড়তে পারেন


সর্বশেষ সংবাদ