in ,

জয়পুরহাটে সবজি বাজার নিম্নমুখী

জয়পুরহাট

জুমবাংলা ডেস্ক: সবজি চাষে উদ্বৃত্ত জেলা জয়পুরহাটের হাটবাজারগুলোতে সবজির বাজার এখন নিম্নমূখী। মরিচের দমি বৃদ্ধি পেলেও বর্তমানে প্রায় অর্ধেক কমেছে।

জেলার বিভিন্ন হাটবাজার ঘুরে জানা যায়, অতি বৃষ্টির কারণে এ সময় বাজারে সবজির দাম একটু চড়া থাকে কিন্তু এবার ব্যাতিক্রম যে হাটবাজার গুলোতে সবজির দাম স্বাভাবিক রয়েছে।  বর্তমান বাজারে  ২০০ টাকা কেজির কাঁচা মরিচ এখন ৮০ থেকে ৯০ টাকা কেজি বিক্রি হচ্ছে। এ ছাড়াও  পটল ৩০ টাকা,  বেগুণ ৩৫ থেকে  ৪০ টাকা,  বরবটি ৪০ টাকা, মূখি কচুর কেজি ২০ টাকা, শসা ৩০ টাকা, চিচিঙ্গা ৩০ টাকা, ঢেঁড়স ৩০ টাকা, আলু ১৬ থেকে ২৫ টাকা, পেঁয়াজ কেজি প্রতি ৩৫ থেকে ৪০ টাকা,  প্রতি পিস লাউ ২০ থেকে ২৫ টাকা,  চিচিঙ্গা ৩০ টাকা, মূলা ৪০ টাকা কেজি বিক্রি করতে দেখা যায়। চালের  বাজারে  মোটা চাল বিক্রি হচ্ছে ৪৫ থেকে ৪৮ টাকা এবং বিআর-২৮ ও ২৯ বিক্রি হচ্ছে ৫০ থেকে ৫২ টাকা, জিরাশাইল, মিনিকেট, নাজিরশাইলম ও পাইজাম বিক্রি হচ্ছে প্রকার ভেদে ৫৬ থেকে ৬০ টাকা  কেজি। মাছের বাজারে ইলিশের দাম তুলনামূলক একটু বেশি হলেও দেশীয় প্রজাতির মাছ বিশেষ করে রুই কাতলা সাইজ অনুযায়ী ১৬০ থেকে ২৮০ টাকা কেজি বিক্রি হচ্ছে। সেনালী মুরগির কেজি ২৩০ টাকা বিক্রি হচ্ছে। ডিমের দাম বেড়ে হয়েছে ৩২ টাকা হালির ডিম এখন বিক্রি হচ্ছে ৩৫ থেকে ৩৬ টাকা হালি। এবার বাজারে টিসিবি’র পণ্য পর্যাপ্ত সরবরাহ  থাকায়  বাজারে নিত্যপণ্যের দাম স্বাভাবিক রয়েছে বলে জানান ক্রেতা-বিক্রেতারা। জেলা শহরের সাহেব বাজারের নিত্যপণ্য বিক্রেতা মাহফুজুল হক, শাহীন ও বিপ্লব জানান, টিসিবি’র পণ্যের সঙ্গে ওএমএস চালু থাকায় সব কিছুর বাজার মূল্য এবার স্বাভাবিক রয়েছে।

জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর সূত্র বাসস’কে জানায়, জেলার কৃষকরা অধিক লাভের আশায়  আগাম জাতের ফসল চাষ করে থাকেন। এবারও আগাম সবজি চাষ শুরু হয়ে গেছে। ইতোমধ্যে  ২ হাজার ৬শ হেক্টর বিভিন্ন ধরনের সবজি চাষ হয়েছে  বলে জানান, জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের  উপ-পরিচালক স. ম মেফতাহুল বারি। সূত্র: বাসস