অর্থনীতি-ব্যবসা জাতীয় স্লাইডার

তৈরি পোশাক রফতানিতে হোঁছট খাচ্ছে বাংলাদেশ

নিজস্ব প্রতিবেদক : চলতি অর্থবছরের প্রথম চার মাসে তৈরি পোশাক রফতানিতে হোঁছট খাচ্ছে বাংলাদেশ।  পোশাক রফতানির অন্যতম বাজার ইউরোপের ২৮টি দেশের মধ্যে ২১টিতে রফতানি কমেছে ৮ শতাংশের বেশি।  রপ্তানী উন্নয়ন ব্যুরোর (ইপিবি) তথ্যের ভিত্তিতে এ পরিসংখ্যান বেরিয়ে আসে।

জানা গেছে, বাংলাদেশ থেকে রফতানি হওয়া পণ্যের ৮০ শতাংশের বেশি তৈরি পোশাক। ইউরোপের ২১টি দেশে রফতানি কমে যাওয়ার কারণও তৈরি পোশাকের রফতানির পতন। ইপিবির রফতানি পরিসংখ্যান বিশ্লেষণে দেখা যায়, বড় বাজারগুলোর মধ্যে জার্মানি, ফ্রান্স, নেদারল্যান্ডস ও যুক্তরাজ্যে পোশাক রফতানি কমেছে যথাক্রমে ১০ দশমিক ৯৯, ৩ দশমিক ৭৮, ৪ দশমিক ৭৪ ও ১ দশমিক ৯৮ শতাংশ। আর গোটা ইউরোপে পোশাকপণ্য রফতানি কমেছে ৭ দশমিক ৬৫ শতাংশ।

চলতি অর্থবছরের চার মাসে জার্মানিসহ ইউরোপের ২১টি দেশে বাংলাদেশের পণ্য রফতানি হয়েছে ৬৬৯ কোটি ৪৮ লাখ ৯৮ হাজার ৯৮৫ ডলারের। গত অর্থবছরের একই সময়ে ২১টি দেশে রফতানি হয়েছিল ৭৩০ কোটি ১৩ লাখ ৯৫ হাজার ৩২১ ডলারের। এ হিসাবে ২১ দেশে পণ্য রফতানি কমেছে ৮ দশমিক ৩ শতাংশ।

আলোচ্য সময়ে কেবল জার্মানিতেই পোশাক রফতানি কমেছে ১০ শতাংশ, যুক্তরাজ্যে ২ ও নেদারল্যান্ডসে ৬ দশমিক ২৩ শতাংশ।  এছাড়া অস্ট্রিয়া, বেলজিয়াম, বুলগেরিয়া, সাইপ্রাস, চেক রিপাবলিক, ডেনমার্ক, স্পেন, ফিনল্যান্ড, ফ্রান্স, যুক্তরাজ্য, ক্রোয়েশিয়া, আয়ারল্যান্ড, ইতালি, লিথুয়ানিয়া, লাটভিয়া, নেদারল্যান্ডস, পর্তুগাল, রোমানিয়া, সুইডেন ও স্লোভাকিয়ায় পোশাক রফতানি উল্লেখযোগ্যহারে কমেছে।

সংশ্লিষ্টরা বলছেন, ইউরোপসহ বহির্বিশ্বে বাংলাদেশের মোট রফতানি কমে যাওয়ার মূল কারণ পোশাকের রফতানি কমে যাওয়া। আর পোশাকের রফতানি কমে গেছে মূলত বাংলাদেশের প্রতিযোগিতা সক্ষমতা দুর্বল হওয়ায়। প্রতিযোগিতা সক্ষমতা দুর্বল হয়েছে মূলত মুদ্রাবিনিময় হারের কারণে। মুদ্রার অবমূল্যায়নের কারণে নিট পণ্যের অধিকাংশ ক্রয়াদেশ অন্যত্র চলে গেছে। এর প্রভাব পড়েছে রফতানিতে।



জুমবাংলানিউজ/পিএম




আপনি আরও যা পড়তে পারেন


সর্বশেষ সংবাদ