in

দুই বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষ, মায়ের সঙ্গে ছেলেরও মর্মান্তিক মৃত্যু

জুমবাংলা ডেস্ক: বরগুনার আমতলীতে সড়ক দুর্ঘটনায় প্রাণ গেল মা ও ছেলের। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন প্রায় ২০ জন। আজ শনিবার (২৩ অক্টোবর) বেলা সাড়ে ৩টার দিকে পটুয়াখালী-আমতলী-কুয়াকাটা আঞ্চলিক মহাসড়কের আমড়াগাছিয়া বাসস্ট্যান্ডের দক্ষিণ পাশে রহমান পেট্রল পাম্পের সামনে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন আমতলী উপজেলার খাকদান গ্রামের এমরান মিয়ার স্ত্রী আয়েশা বেগম (৩৫) ও তার ৪ মাসের শিশু পুত্র আয়ানের ঘটনাস্থলেই মারা যাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন আমতলী ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন ইনচার্জ তামিম হাওলাদার।

দুর্ঘটনায় স্বামী এমরান (৪৫) ও তার মেয়ে খাদিজা (১০) গুরুতর আহত হয়। এ ছাড়া জুলেখা (৩০), শাহিন (৩৬), বায়েজিদ (৩৫), হাফিজ (৪০) লিটন (৪০), মরিয়ম (২৫), শাহিন (২৫), গোল্ডেন লাইন চালকসহ ২০ যাত্রী আহত হয়েছে। আহতদের আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি এবং পটুয়াখালী মেডিক্যাল কলেজ ও বরিশাল শেবাচিম হাসাপাতালে চিকিৎসার জন্য প্রেরণ করা হয়েছে।

পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিস সূত্রে জানা গেছে, শনিবার বিকাল অনুমান সাড়ে ৩টার দিকে আমতলী থেকে কুড়িগ্রাম উদ্দেশ্যে ছেড়ে যাওয়া গোল্ডেন লাইন এবং চট্টগ্রাম থেকে কুয়াকাটার উদ্দেশ্যে ছেড়ে আসা সেন্টমার্টিন সেবা পরিবহন নামের অপর একটি বাসের সঙ্গে মুখোমুখী সংঘর্ষ হয়। এতে দুটি পরিবহন বাসের সামনের অংশ দুমড়ে মুচড়ে যায়। পরে স্থানীয়রা ফায়ার সার্ভিসে খবর দিলে তারা ঘটনাস্থলে পৌঁছে এক মহিলা যাত্রীর মরদেহ উদ্ধার করে। গুরুতর অবস্থার তার কোলে থাকা চার মাসের শিশুটিকে আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়ার পথে মারা যায়। গুরুতর আহত গোল্ডেন লাইন পরিবহন বাসের চালক চিকিৎসার জন্য পটুয়াখালী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক ডা. সুমন খন্দকার বলেন, আহতদের যথাযথ চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। গুরুতর আহতদের পটুয়াখালী ও বরিশাল সেবাচিম হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।

আমতলী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. শাহ আলম হাওলাদার মুঠোফোনে বলেন, দুর্ঘটনায় মা ও তার শিশু পুত্র নিহত হয়েছে। যাত্রীবাহী বাস দুটি আটক করা হয়েছে। লাশ উদ্ধার করে আমতলী থানায় আনা হয়েছে।