দুই লাখ টাকার কন্টাক্ট, ভ্যানচালক হত্যায় অংশ নেয় ৫ জন

জুমবাংলা ডেস্ক: মাদারীপুরের রাজৈর উপজেলার মজুমদার কান্দি গ্রামে ২৩ মে রাতে ভ্যানচালক মোতাহারকে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা। ঘটনার ২০ দিনে মধ্যে পুলিশ হত্যার রহস্য উন্মোচন করে ও হত্যায় জড়িত মূল আসামি মো. ইলিয়াস মোল্লাসহ ৪ জনকে গ্রেফতার করে।

জানা গেছে, ভ্যানচালক মোতাহারকে হত্যা করতে ২ লাখ টাকায় কন্টাক্ট করা হয়। এমারতসহ এ হত্যাকাণ্ডে সরাসরি অংশগ্রহণ করে ৫ জন। মূলত জমি-জমা নিয়ে দ্বন্দ্বে এ হত্যাকাণ্ড সংগঠিত হয়।

সোমবার দুপুর ১২ টার সময় মাদারীপুর পুলিশ সুপার কার্যালয় সংবাদ সম্মেলন করে পুলিশ সুপার মো. গোলাম মোস্তফা রাসেল এ তথ্য জানান।

সংবাদ সম্মেলনে পুলিশ সুপার মো. গোলাম মোস্তফা রাসেল বলেন, গ্রেফতারকৃত মূল আসামি মো. ইলিয়াস মোল্লা ১৬৪ ধারায় আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেয়। সেখানে ইলিয়াস মোল্লা তার স্বীকারোক্তিতে বলেন- এমারত ফরাজীর সঙ্গে ভ্যানচালক মোতাহারের জমি-জমা নিয়ে বিরোধ ছিল। জমিটি মোতাহারের দখলে থাকার কারণে তাকে হত্যা করার পরিকল্পনা করা হয়।

তিনি জানান, হত্যাকাণ্ডে ২ লাখ টাকা কন্টাক্ট করা হয়। এমারতসহ হত্যাকাণ্ডে সরাসরি অংশগ্রহণ করে ৫ জন। এর মধ্যে গ্রেফতারকৃত ইলিয়াস মোল্লা ও আনোয়ার মোল্লা অগ্রিম বাবদ ৫ হাজার টাকা গ্রহণ করে। এছাড়া আরও দুজন তাদের সঙ্গে হত্যার পরিকল্পনায় অংশ নেয়।

গত ২৩ মার্চ রাতে এমারত ফরাজী, ইলিয়াস মোল্লা ও আনোয়ার মোল্লাসহ হত্যাকাণ্ডে ৫ জন অংশগ্রহণ করে। নিহত মোতাহার এশার নামাজ শেষে যখন মসজিদ থেকে বাড়ি ফিরছিল তখন পথে পিটিয়ে এবং শ্বাসরোধ করে হত্যা করে পাশের একটি পাট ক্ষেতে লাশ ফেলে পালিয়ে যায়।

এ ঘটনায় রাজৈর থানায় হত্যা মামলা হলে পুলিশি তদন্ত ও গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে মোতাহার হত্যার মূল রহস্য উন্মোচন করে এবং হত্যাকাণ্ডে জড়িত ৪ জনকে গ্রেফতার করে। বাকি আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে বলে সংবাদ সম্মেলনে পুলিশ সুপার গোলাম মোস্তফা রাসেল জানান।

আজকের জনপ্রিয়:
>> আয়ু কমে যাওয়ার ৭ কারণ
>> সন্তানদের যে আমলের অভ্যাস করানো জরুরি
>> ছেলেদের যে বিষয়গুলো মেয়েরা সবার আগে খেয়াল করে


Share:





জুমবাংলানিউজ/এসওআর