Views: 138

ইসলাম জাতীয় ধর্ম

বিশ্ব ইজতেমার প্রথম পর্বের আখেরী মোনাজাত আজ


জুমবাংলা ডেস্ক:  আজ জোহরের নামাজের আগে যেকোনো সময় ৫৫তম বিশ্ব ইজতেমার প্রথম পর্বের আখেরী মোনাজাত অনুষ্ঠিত হবে বলে জানিয়েছে ইজতেমা সূত্র।

আখেরী মোনাজাত পরিচালনা করবেন তাবলিগ জামাতের শীর্ষ বুজুর্গ ও কাকরাইল মসজিদের খতিব হাফেজ মাওলানা মোহাম্মদ যোবায়ের।

বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্ব শুরু হবে আগামী ১৭ জানুয়ারি। এ পর্বের আয়োজক বিশ্ব তাবলিগ জামাতের সাবেক আমির মাওলানা সাদ কান্ধলভীর অনুসারীরা।

তাবলিগ জামাতের বিবদমান দুই পক্ষের সংঘাতময় পরিস্থিতির কারণে প্রশাসনের পক্ষ থেকে উভয় পক্ষকে পৃথকভাবে ভিন্ন সময়ে দুই পর্বে বিশ্ব ইজতেমা আয়োজনের নির্দেশনা দেওয়া হয়। মাওলানা যোবায়ের অনুসারীরা আমলি শুরার তত্ত্বাবধানে বিশ্ব ইজতেমার যাবতীয় প্রস্তুতিকাজ সম্পন্ন করেন। অন্যদিকে মাওলানা সাদ কান্ধলভী অনুসারীদের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে দ্বিতীয় মোনাজাতের পর সব অবকাঠামো খুলে তা সংরক্ষণ করার।

গত বছর থেকে বিশ্ব ইজতেমার আয়োজন এভাবেই চলছে। এর আগে বিভিন্ন দেশের মেহমানদের অংশগ্রহণে ৩২ জেলা করে দুই পর্বে ইজতেমা অনুষ্ঠিত হতো। তাবলিগ জামাতের মধ্যে বিভেদ সৃষ্টি হওয়ার পর থেকে বিশ্ব ইজতেমায় বিদেশি মেহমানদের অংশগ্রহণ উল্লেখযোগ্য হারে কমে দুই ভাগ হয়ে গেছে।

এবারের বিশ্ব ইজতেমার প্রথম পর্বে ৫১টি দেশের প্রায় তিন হাজার প্রতিনিধি অংশ নিয়েছেন বলে আয়োজক সূত্র জানায়। ইজতেমার দ্বিতীয় দিন গতকাল শনিবার তাবলিগের ছয় উসুলের আলোকে কোরআন ও হাদিসের ব্যাখ্যা সংবলিত আমবয়ান পেশ করেন দেশ-বিদেশের বুজুর্গ মুরব্বিরা।

বাদ ফজর বয়ান করেন মাওলানা আব্দুর রহমান, বাদ জোহর বয়ান করেন মাওলানা ইসমাইল গোদরা, বাদ আসর বয়ান করেন মাওলানা জোহায়রুল হাসান, বাদ মাগরিব বয়ান করেন মাওলানা ইব্রাহীম দেওলা।


নজিরবিহীন কড়া নিরাপত্তায় এবারের ইজতেমা ছিল অত্যন্ত শান্ত ও সুশৃঙ্খল। প্রাকৃতিক পরিবেশ ছিল অনুকূল। গত দুই দিন শীত ও ঠাণ্ডা বাতাস থাকলেও বৃষ্টিপাত হয়নি।

প্রথম পর্বে আগের বছরগুলোর চেয়ে এবার মুসল্লির সংখ্যা অনেক বেশি হয়েছে। যদিও এবার প্যান্ডেলের আয়তন বাড়িয়ে খেত্তার সংখ্যা বৃদ্ধি করা হয়েছে। প্রথম দিনই তুরাগ নদের দুই তীরের শামিয়ানা পূর্ণ হয়ে যাওয়ার পর বিভিন্ন জেলা থেকে আসা জামাতবদ্ধ মুসল্লিরা ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়ক, কামারপাড়া সড়ক, হোন্ডা সড়কসহ আশপাশের রাস্তায় ঠাঁই নিয়েছেন।

বিশ্ব ইজতেমা শেষে প্রথম পর্বে অংশগ্রহণকারী মুসল্লিদের সবাই বাড়ি ফিরে যাবেন না। কয়েক হাজার নতুন জামাত দেশ-বিদেশে দাওয়াতে তাবলিগের কাজে ছড়িয়ে পড়বে। বিভিন্ন দেশ থেকে আসা মেহমানদের অনেকেই বাংলাদেশে দাওয়াতের কাজে সম্পৃক্ত হবেন।

প্রতিবছর বিশ্ব ইজতেমার তিন দিনের কর্মসূচিতে যতসংখ্যক মানুষের সমাগম ঘটে এর প্রায় দ্বিগুণ লোকের সমাগম ঘটে আখেরী মোনাজাতে। মোনাজাতে অংশ নিতে এরই মধ্যে টঙ্গীর প্রতিটি বাড়িঘর, কলকারখানা, কলোনি ও আশপাশের গ্রামগুলোতে আত্মীয়-স্বজন এসে হাজির হয়েছেন। আজ ফজরের নামাজের আগেই সবাই অজু-গোসল সেরে পায়জামা, পাঞ্জাবি, টুপি, লুঙ্গি পরে ও আতর মেখে রওনা দেবেন ইজতেমা মাঠের দিকে। মোনাজাত শেষে বাড়ি ফিরে আসতে সময় লেগে যাবে কয়েক ঘণ্টা। তাই তো প্রতিবছরের মতো এবারও সবাই আগের দিন বিশেষ বাজার করে রান্নাবান্নার কাজ শেষ করে রেখেছেন।

আখেরী মোনাজাতে অংশ নিতে আগতদের অর্ধেকেরই ঠাঁই হয় মহাসড়ক, অলিগলি ও বিভিন্ন ভবনের ছাদে। আর তাই হোগলাপাটি ও মাদুর এমনকি পুরনো খবরের কাগজেরও চাহিদা বেড়ে যায়। গতকাল থেকেই এসব সামগ্রী জোগান দেওয়ার জন্য খুদে ব্যবসায়ীরা তৎপর হয়ে উঠেছেন। আখেরী মোনাজাতে অংশগ্রহণকারীদের তৃষ্ণা মেটাতে কিছু সংগঠন ও প্রতিষ্ঠান বিনা মূল্য খাবার পানির ব্যবস্থা নিয়েছে। এ ছাড়া টঙ্গী-গাজীপুর এলাকার প্রায় সব সড়কের পাশেই গড়ে তোলা হয়েছে নাশতার হোটেল। আজ ভোরে হোটেলগুলোতে বিরিয়ানি ও পরোটা ভাজির প্যাকেজ চালু হবে বলে জানান বেশ কয়েকজন। হোটেলগুলোতে নাশতা তৈরির কাজ শুরু হয় রাত ১১টার পর থেকেই। আখেরী মোনাজাতে অংশ নিতে টঙ্গী ও গাজীপুরের বেশির ভাগ প্রতিষ্ঠান আজ বন্ধ থাকবে।


যাদের বাচ্চা আছে, এই এক গেইমে আপনার বাচ্চার লেখাপড়া শুরু এবং শেষ হবে খারাপ গেইমের প্রতি আসক্তিও।ডাউনলোডকরুন : https://play.google.com/store/apps/details?id=com.zoombox.kidschool



আরও পড়ুন

বিবিসির ১০০ নারীর তালিকায় রামুর মেয়ে রিমার কীর্তিগাঁথা

azad

করোনার টিকা দ্রুত প্রাপ্তির ব্যাপারে সরকার সকল প্রস্তুতি গ্রহণ করেছে: সেতুমন্ত্রী

mdhmajor

অভিনেতা আলী যাকেরের মৃত্যুতে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর শোক

azad

দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্ত ও মৃত্যুর সর্বশেষ তথ্য

azad

আর মাত্র ২ স্প্যান বাকি পদ্মা সেতুর

azad

পদ্মা সেতুতে বসলো ৩৯তম স্প্যান, দৃশ্যমান ৫৮৫০ মিটার

azad