দৌলতদিয়া ঘাটে গাড়ির ৩ কিলোমিটার সারি

জুমবাংলা ডেস্ক : দীর্ঘদিন বন্ধ থাকার পর গণপরিবহন চালু ও কোরবানির পশুবাহী ট্রাকের চাপে রাজবাড়ীর দৌলতদিয়া ঘাট এলাকায় আটকা পড়েছে অসংখ্য যানবাহন। ফেরি ঘাটের জিরো পয়েন্ট থেকে অন্তত ৩ কিলোমিটার গাড়ির এ দীর্ঘ সারি। এতে প্রচণ্ড রোদে বাসে আটকে থাকা যাত্রীদের দুর্ভোগের পাশাপাশি ট্রাকে থাকা গরুগুলো নিয়ে চরম বিপাকে পড়েছেন সংশ্লিষ্টরা।

বৃহস্পতিবার সকাল থেকে বেলা ১১টা পর্যন্ত দৌলতদিয়া ঘাট ঘুরে দেখা যায়, দীর্ঘদিন পর স্বরূপে ফিরেছে দৌলতদিয়া ঘাট। বিগত কয়েক মাস দৌলতদিয়া ঘাটে নদী পারের জন্য কোনো যানবাহনকে মহাসড়কে দাঁড়িয়ে থাকতে দেখা না গেলেও বৃহস্পতিবার সকাল থেকে সেই পুরনো দৃশ্যে দেখা গেছে। ফেরির জন্য প্রতিটি যানবাহনকে মহাসড়কে অপেক্ষা করতে হচ্ছে দীর্ঘ সময়।

বেলা ১১টা নাগাদ দৌলতদিয়া ফেরি ঘাটের জিরো পয়েন্ট থেকে অন্তত ৩ কিলোমিটার দূরে বাংলাদেশ হ্যাচারিজ পর্যন্ত সৃষ্টি হয় যানবাহনের দীর্ঘ সারি। সময় বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে বাড়ছে সারির দৈর্ঘ্য। আটকে থাকা যানবাহনের যাত্রীরা পড়েছেন দুর্ভোগে। পাশাপাশি প্রচণ্ড গরমে কোরবানি উপলক্ষে ঢাকাসহ আশপাশের জেলায় ট্রাকে করে বিক্রির জন্য নিয়ে যাওয়া গরু নিয়ে চরম দুর্ভোগে পড়েছেন গরু ব্যবসায়ীরা। রোদ ও গরমে বেশিরভাগ গরু অসুস্থ হয়ে পড়ছে।

যাত্রীবাহী বাস চালক মো. দুলাল পাটোয়ারী জানান, দীর্ঘদিন পর গাড়ি চালানোর সুযোগ পেয়েছি। এতদিনে অনেক কিছুই পরিবর্তন হয়েছে, কিন্তু দৌলতদিয়া ঘাটের দুর্ভোগের চিত্র একই আছে। প্রায় ঘণ্টা দুয়েক আগে দৌলতদিয়া ঘাট এলাকায় এসেছি। প্রচণ্ড গরমে বাসের মধ্যেই বসে থাকতে হচ্ছে। যাত্রীরা অধৈর্য্য হয়ে পড়ছেন। কিন্তু কিছুই করার নেই। জানি না কখন ফেরির নাগাল পাব।

কুষ্টিয়ার গরু ব্যবসায়ী আব্দুল গফুর ব্যাপারী জানান, লাখ লাখ টাকার গরু নিয়ে তারা বেশি দামে বেচার আশায় ঢাকায় যাচ্ছেন। কিন্তু দৌলতদিয়া ঘাটে এসে ফেরির জন্য ঘণ্টার পর ঘণ্টা অপেক্ষা করতে হচ্ছে তাদের। ফলে গরুগুলো প্রচণ্ড গরমে অসুস্থ হয়ে পড়ছে।

বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ পরিবহন করপোরেশনের (বিআইডব্লিউটিসি) স্থানীয় সূত্র জানায়, দুর্ভোগ কমাতে যাত্রীবাহী যানবাহন ও কোরবানির পশুবাহী ট্রাকগুলো অগ্রাধিকার ভিত্তিতে পারাপার করা হচ্ছে।

বিআইডাব্লিউটিসি দৌলতদিয়া ঘাট শাখার ব্যবস্থাপক (বাণিজ্য) শিহাব উদ্দিন জানান, দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌরুটে বর্তমানে ছোট-বড় ১৫টি ফেরি চলাচল করছে। ঈদুল আজহা উপলেক্ষ দু-একদিনের মধ্যে আরো দু’টি রো রো ফেরি এ নৌরুটের ফেরি বহরে যুক্ত হবে। এছাড়া ৩ নম্বর ফেরি ঘাটটি সাময়িক সময়ের জন্য বন্ধ রেখে মেরামত করা হচ্ছে।


জুমবাংলানিউজ/এসআর