নরসিংদীতে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৬

জুমবাংলা ডেস্ক : নরসিংদীর পাঁচদোনা ঘোড়াশাল সড়কে কাভার্ড ভ্যান ও লেগুনার মুখোমুখি সংঘর্ষে এখন পর্যন্ত ছয়জন নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় গুরত্বর আহত হয়েছেন আরও পাঁচজন। শুক্রবার (১৬ জুলাই) দুপুরে পাঁচদোনা-ঘোড়াশাল আঞ্চলিক সড়কের ভাটপাড়া চাকশাল এলাকায় এ হতাহতের ঘটনা ঘটে। নিহত তিনজনের নাম- পরিচয় নিশ্চিত করেছে পুলিশ। তাঁরা হলেন সুনামগঞ্জের বাংলাবাজার এলাকার সাইফুল ইসলামের ছেলে আল আমিন (১০), গাজীপুরের কালীগঞ্জ উপজেলার মোজাফফর হোসেনের ছেলে চাঁন মিয়া (৫৫) ও নেত্রকোনার পূর্বধলার আবদুল হান্নানের ছেলে লেগুনাচালক আমান মিয়া (২৩)। নিহত অন্য তিনজনের পরিচয় তাৎক্ষণিকভাবে জানাতে পারেনি পুলিশ।

পুলিশ ও স্থানীয় কয়েকজন বাসিন্দা বলেন, বেলা দেড়টার দিকে অন্তত ১৫ জন যাত্রী নিয়ে একটি লেগুনা পাঁচদোনার দিকে যাচ্ছিল। লেগুনাটি চাকশাল এলাকায় পৌঁছার পর বিপরীত দিক থেকে আসা একটি কাভার্ড ভ্যানের সঙ্গে মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে ঘটনাস্থলেই দুজনের মৃত্যু হয়।

স্থানীয় লোকজন আহত অবস্থায় উদ্ধার করে আটজনকে নরসিংদী সদর হাসপাতালে পাঠান। এই হাসপাতালে নেওয়ার পথে আরও দুজনের মৃত্যু হয়। পরে হাসপাতালে নেওয়ার পর চিকিৎসাধীন অবস্থায় আরও একজনের মৃত্যু হয়। হাসপাতালটির জরুরি বিভাগের কর্তব্যরত চিকিৎসক ওই তিনজনকে মৃত ঘোষণা করেন। পরে পাঁচজনের লাশ ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়।

এ ছাড়া আহত এক নারী (৩০) বাড়ি যাওয়ার পর মারা যান। নরসিংদী সদর হাসপাতালের জরুরি বিভাগের কর্তব্যরত চিকিৎসক মাহমুদুল কবির আরিফ জানান, এ ঘটনায় আমাদের হাসপাতালে দুই ব্যক্তিকে মৃত অবস্থায় আনা হয়েছিল। আরেকজনের মৃত্যু হয়েছে চিকিৎসাধীন অবস্থায়। নরসিংদীর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) ইনামুল হক জানান, দুর্ঘটনায় এখন পর্যন্ত এক শিশুসহ লেগুনার ছয়জন যাত্রী নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরও পাঁচ যাত্রী। ঘাতক কাভার্ড ভ্যানটি আটক করা হলেও এর চালক পালিয়ে গেছেন।


জুমবাংলানিউজ/এসআই