in

নোয়াখালীতে দাফনের ৩ মাস ২১ দিন পর গৃহবধূর লাশ উত্তোলন

জুমবাংলা ডেস্ক : নোয়াখালী সদরের উত্তর শুল্লকিয়া গ্রামে লাশ দাফনের ৩ মাস ২১ দিন পর ময়নাতদন্তের জন্য এক গৃহবধূর লাশ কবর থেকে তোলা হয়েছে।

রবিবার (২৫ জুলাই) সকালে পারিবারিক কবরস্থান থেকে জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. তারিকুল ইসলামের উপস্থিতিতে সুধারাম মডেল থানা পুলিশ গৃহবধূ মারজাহানের লাশ উত্তোলন করে।

সুধারাম মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. সাহেদ উদ্দিন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

সুধারাম মডেল থানা পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, সৎ ছেলে মো. সোহাগের স্ত্রী মারজাহান বেগমকে হত্যার অভিযোগে গত ১৬ জুন নোয়াখালীর আমলি আদালতে স্বামী আবদুল খালেক, সৎ ছেলে মো. সোহাগ ও রাজু এবং সৎ মেয়ের স্বামী জামাল উদ্দিনকে আসামি করে মামলা করেন রহিমা বেগম। আদালতের নির্দেশে রবিবার সকালে লাশ উত্তোলন করা হয়।

চলতি বছরের গত ৩ এপ্রিল রাতে সৎ ছেলে মো. সোহাগের স্ত্রী মারজাহান বেগমকে হত্যার পর বিষপানে আত্মহত্যা বলে চালিয়ে দেয়ার অভিযোগ করেন রহিমা বেগম। তার দাবি, হত্যার বিষয়টি জানতে পেরে প্রতিবাদ করায় তাকে দুই মাসের বেশি সময় ঘরে আটকে রাখা হয়। পরে কৌশলে স্বামীর বাড়ি থেকে বের হয়ে তিনি আদালতে মামলাটি করেন।

জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. তারিকুল ইসলাম জানান, আদালতের নির্দেশে ৩ মাস ২১ দিন পর গৃহবধূ মারজাহান বেগমের লাশ কবর থেকে উত্তোলন করে ময়নাতদন্তের জন্য নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়। ময়নাতদন্ত শেষে পুনরায় একই স্থানে লাশটি দাফন করা হয়েছে।

অনলাইনে খুব সহজে টাকা ইনকাম করার উপায়