পরকীয়াকাণ্ডে প্রকাশ্যে গুলি করে হত্যা, ৩ জনের মরদেহ পরিবারের কাছে হস্তান্তর

জুমবাংলা ডেস্ক: কুষ্টিয়ায় প্রকাশ্যে ৩ জনকে গুলি করে হত্যার ঘটনায় মরদেহ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

সোমবার (১৪ জুন) সকাল সাড়ে ৮টার দিকে নিহতের পরিবারের সদস্যরা মর্গ থেকে মরদেহ নিয়ে যায়। এ সময় নিহতদের পরিবার জানিয়েছেন, দুপুরে তাদের নিজ নিজ গ্রামে জানাজা শেষে দাফন করা হবে।

নিহতরা হলেন, এএসআই সৌমেনের স্ত্রী আসমা (২৫), সৎ ছেলে রবিন (৫) এবং পরকীয়া প্রেমিক শাকিল (২৮)।

জানা গেছে, কুষ্টিয়া-ঝিনাইদহ মহাসড়কের পাশে শহরের পিটিআই সড়কের মুখে আসমা, শাকিল ও রবিনকে প্রকাশ্যে গুলি করে হত্যা করে সৌমেন। এ ঘটনায় পুলিশ আসমার স্বামী এএসআই সৌমেন রায়কে পিস্তলসহ আটক করে। তিনি খুলনার ফুলতলা থানায় কর্মরত ছিলেন। তার বাড়ি মাগুরা সদর উপজেলার আসপা গ্রামে।

এদিকে এএসআই সৌমেন রায়কে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। রোববার (১৩ জুন) বিকেলে তাকে বরখাস্ত করা হয়। এ ঘটনায় খুলনা রেঞ্জ থেকে তিন সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। খুলনা রেঞ্জের দুজন পুলিশ কর্মকর্তাসহ কুষ্টিয়ায় এক পুলিশ কর্মকর্তাকে তদন্ত কমিটির সদস্য হিসেবে রাখা হয়েছে।

কুষ্টিয়ার পুলিশ সুপার খায়রুল আলম বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, ঘটনা জানার পর সৌমেন রায়কে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। এরপর তদন্ত শেষে তার বিরুদ্ধে সর্বশেষ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

কুষ্টিয়া মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সাব্বিরুল আলম বলেন, ৩ জনকে গুলি করে হত্যার ঘটনায় নিহত শাকিল খানের বাবা মেজবার রহমান বাদী হয়ে রোববার (১৩ জুন) রাতে হত্যা মামলা দায়ের করেন। মামলায় এএসআই সৌমেন রায়কে একমাত্র আসামি করা হয়েছে। রোববার রাতে ৩০২ ধারায় হত্যা মামলাটি দায়ের করা হয়েছে। মামলা নম্বর ৩৯।

আজকের জনপ্রিয়:
>> আয়ু কমে যাওয়ার ৭ কারণ
>> সন্তানদের যে আমলের অভ্যাস করানো জরুরি
>> ছেলেদের যে বিষয়গুলো মেয়েরা সবার আগে খেয়াল করে


Share:





জুমবাংলানিউজ/এসওআর