পরকীয়া করতে গিয়ে প্রাক্তন স্বামী-স্ত্রী ধরা!

জুমবাংলা ডেস্ক : জামালপুরে সরিষাবাড়ীতে পরকীয়া করতে গিয়ে জনতার হাতে ধরা পড়েছেন প্রাক্তন স্বামী-স্ত্রী। এরপর সুযোগ পেয়েই পালিয়ে যান পরকীয়া প্রেমিক। পরে বিয়ের দাবিতে তার বাড়িতে অনশন করেন প্রেমিকা। এমনকি বিয়ে না করলে আত্মহত্যার হুমকিও দেন তিনি।

রোববার দুপুরে ওই উপজেলার পিংনা ইউনিয়নের কাওয়ামারা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। অভিযুক্ত সাব্বির ওই গ্রামের মজর আলীর ছেলে। তার প্রেমিকাও একই গ্রামের বাসিন্দা।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, দুপুর ২টার দিকে পিংনা গ্রামের সুজাত আলী ডিগ্রি কলেজের ভেতরে প্রবেশ করেন সাব্বির ও তার প্রাক্তন স্ত্রী। দীর্ঘক্ষণ পরও তারা বাইরে বের না হওয়ায় স্থানীয় কয়েকজন ভেতরে গিয়ে দুইজনকে আপত্তিকর অবস্থায় দেখতে পায়। এক পর্যায়ে আরো লোকজন জড়ো হলে পালিয়ে যান সাব্বির। এরপর তার বাড়িতে বিয়ের দাবিতে অনশনে বসেন প্রাক্তন স্ত্রী।

স্থানীয়রা জানায়, সাব্বির এবং ওই নারীর আগে একবার বিয়ে হয়েছিল। বনিবনা না হওয়ায় বিচ্ছেদ হয় তাদের। এরপর পার্শবর্তী চিতুলিয়া গ্রামের নাজাত আলীর সঙ্গে বিয়ে হয় ওই নারীর। নাজাত চাকরির সুবাদে ঢাকায় থাকেন। সেই সুযোগে সাব্বিরের সঙ্গে পরকীয়ায় জড়িয়ে পড়েন তিনি।

অনশনরত নারী বলেন, সাব্বির আমাকে অসহায় অবস্থায় ফেলে পালিয়েছে। তার পরিবারের লোকজনও ঘরে তালা দিয়ে অন্যত্র চলে গেছে। এখন সে আমাকে বিয়ে না করলে আমি আত্মহত্যা করব। এর জন্য সাব্বির ও তার পরিবার দায়ী থাকবে।

সরিষাবাড়ী থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আবদুল মজিদ জানান, এ ধরনের কোনো অভিযোগ আসেনি। বিষয়টি খতিয়ে দেখে জনপ্রতিনিধি ও দুই পরিবারের সঙ্গে আলোচনা করে ব্যবস্থা নেয়া হবে।


জুমবাংলানিউজ/এসআই