বিনোদন

পরিচালক স্বামীর আসল রূপ দেখাতে চান স্ত্রী

বিনোদন ডেস্ক : কিছু দিন আগে টলিউড নির্মাতা অরিন্দম শীলের বিরুদ্ধে যৌন হেনস্তার অভিযোগ তুলেন অভিনেত্রী রূপাঞ্জনা মৈত্র। যদিও এই অভিযোগ অস্বীকার করেছেন নির্মাতা অরিন্দম।

এবার অরিন্দম শীলের প্রথম স্ত্রী তনুরুচি শীল এই বিতর্কে নতুন করে ঘি ঢাললেন। রূপাঞ্জনার পাশে দাঁড়িয়েছেন তনুরুচি। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে তিনি লিখেন, ‘আমি অরিন্দম শীলের স্ত্রী। কিন্তু উনি (অরিন্দম) আমার সঙ্গে প্রতারণা করেছেন। উনি থাকেন শুক্লা দাসের সঙ্গে।’

হঠাৎ ব্যক্তিগত বিষয় সাবার সামনে আনছেন কেন? এমন প্রশ্নের উত্তরে তনুরুচি ভারতীয় একটি সংবাদমাধ্যমে বলেন, ‘সকলে যাতে অরিন্দমের আসল রূপটা দেখতে পায়, সে কারণেই রূপাঞ্জনার পাশে দাঁড়িয়েছি।’ একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে তনুরুচি এবং শুক্লা দাস একসঙ্গে চাকরি করতেন। সেই সূত্রে অরিন্দম-শুক্লার ঘনিষ্ঠতা হয় বলেও জানান তনুরুচি।

সম্পত্তি থেকে বঞ্চিত করার অভিযোগও তুলেছেন তনুরুচি। তিনি বলেন, ‘অরিন্দম আমাকে সম্পত্তি থেকে বঞ্চিত করেছে। বেলেঘাটায় আমাদের যৌথভাবে কেনা ফ্ল্যাট ছিল। সেটা দখল করে রেখেছে। ও তখন বাম সরকারের ঘনিষ্ঠ ছিল। সেই জোরে আমাকে বাসা থেকে তাড়ায়। সুবিধার জন্য এখন তৃণমূল কংগ্রেসে গিয়েছে।’

এ প্রসঙ্গে অরিন্দম বলেন, ‘কোর্টের বয়ান অনুযায়ী ওই ফ্ল্যাটে আমাদের দু’জনেরই মালিকানা রয়েছে। আমি একাই কিনে নিতে চেয়েছিলাম। কিন্তু ও (তনুরুচি) কোর্টের দিন ফেল করে। চাইলে আমি কোর্টের সেই কাগজও দেখাতে পারি।’

একসঙ্গে অভিনয় করতে গিয়েই তনুরুচির সঙ্গে অরিন্দমের পরিচয় হয়। তারপর প্রেম। ১৯৯২ সালে সামাজিকভাবে বিয়ে করেন তারা। ১৯৯৩ সালে রেজিস্ট্রি বিয়ে করেন। ২০০৩ সালে অরিন্দম ডিভোর্সের মামলা দায়ের করেন। সেই মামলা গত বছর খারিজ হয়েছে বলেও জানান তনুরুচি।

যাদের বাচ্চা আছে, এই এক গেইমে আপনার বাচ্চার লেখাপড়া শুরু এবং শেষ হবে খারাপ গেইমের প্রতি আসক্তিও। ডাউনলোডকরুন : http://bit.ly/2FQWuTP




জুমবাংলানিউজ/এসআর


আপনি আরও যা পড়তে পারেন


rocket

সর্বশেষ সংবাদ