লাইফস্টাইল

পুরুষদের গোপন তথ্য ফাঁস করলেন যৌ’নকর্মী


লাইফস্টাইল ডেস্ক : পুরুষদের প্রথম চাহিদা কী’ থাকে ফাঁ’স করলেন যৌ’নকর্মী। এই শব্দটির সাথে কমবেশি আম’রা সবাই পরিচিত। এই পেশায় কেউই সখে আসে না। কাউকে জোড় করে এই পেশায় আনা হয়। আবার কেউ চরম দারিদ্রতার শি*কার হয়ে এই পেশায় আসতে বাধ্য হন। যাই হোক এই পেশার মানুষদের কাছেও আসে আবার সমাজের বিশেষ একটা শ্রেণীর পুরুষরা। যৌ’ন কর্মীদের কাছে এসে প্রথমেই পুরুষদের কী’ চাহিদা থাকে তা হয়ত অনেকেই জানেন না। সে কথাই এবার জানালেন এক যৌ’নকর্মী।

যৌ’নপল্লি থেকে বেরিয়ে আসা এক নারী নিজের সেই সব দিনের অ’ভিজ্ঞতার কথা জানালেন। জানালেন কী’ ধরনের খদ্দেরের দেখা মিলেছিল।এক শনিবার রাতের ঘটনা। চামড়ার বুট পায়ে দাঁড়িয়ে ছিলেন ওই নারী যৌ’নকর্মী। আচমকাই এক ব্যক্তি এসে তাঁর বুটটি চাটতে থাকেন। কিছু বুঝে ওঠার আগেই মহিলার হাতে টাকা ধরিয়ে সেখান থেকে বেরিয়ে যান ওই ব্যক্তি।একবার এক ব্যক্তির সঙ্গে যে ঘরে শারী’রিক স’ম্পর্কে লি’প্ত হয়েছিলেন ওই মহিলা, সেই ঘরে একটি ফুটো করে রেখেছিলেন ওই ব্যক্তি।


যাতে বাইরে থেকে তাঁর বন্ধুরা অনায়াসে মি’লনের সাক্ষী থাকতে পারেন। এক ব্যক্তি আবার একবার নিজের বিজনেস ট্রিপে ওই মহিলাকে সঙ্গে নিয়ে গিয়ে ছিলেন। কিন্তু কখনওই তাঁর সঙ্গে স’ঙ্গ’ম করেননি। এমনকী’ একই বি’ছানায় শুয়েও তাঁকে স্প’র্শ করেননি। এমন ঘটনা বেশ অ’বাক করেছিল যৌ’নকর্মীকে।এমন বেশ কয়েক জনের সঙ্গে তাঁর দেখা হয়েছিল, যাঁরা বলেছিলেন তাঁরা মহিলা হলে নিঃসন্দেহে দে’হ ব্যবসাকেই বেছে নিতেন।

যৌ’নকর্মীদের কাজ তাঁদের দারুণ পছন্দ ছিল।জীবনে অনেক ভদ্রলোকের সঙ্গেও সাক্ষাৎ হয়েছিল তার। যারা কখনও তাকে কোনও কিছুর জন্য জো’র করতেন না। সাবেক এই যৌ’নকর্মীর মতে, এর দু’টি কারণ হতে পারে।তিনি বলেন, আমি এক ঘণ্টায় তাঁদের থেকে বেশি আয় করতাম বলে হয়তো তাঁরা আমায় সম্মান করতেন।আর নাহলে তাঁরা জানতই যার জন্য তাঁরা অর্থ ব্যয় করছে সেটা জো’র না করেও পাবেন।

এক নিয়মিত খদ্দেরের সঙ্গে আবার দেখা হত এক হার্ডওয়্যার স্টোরে। সেখানেই মি’লন হত তাঁদের। কিন্তু মাঝে মধ্যে দেখা না হলেও ওই খদ্দের প্রতি সপ্তাহে মহিলার কাছে অর্থ পাঠিয়ে দিতেন। ওই ব্যক্তি যেন মহিলার কাছে বাবার মতোই সহৃদয় ছিলেন।পার্টিতে একসঙ্গে একাধিক ম’দ্যপ পুরুষের সঙ্গে সঙ্গম করতে রাজি হতেন না ওই মহিলা। সে বিষয়টি তাঁর কাছে ধ’র্ষ’ণের সমানই ছিল। আবার অল্প বয়সি পুরুষরা নিজেদের অ’তিরিক্ত স্মা’র্ট মনে করতেন। তাঁরা সঠিক দাম তো দিতেনই না, উলটে চোখের আড়ালে টাকা চু’রিও করতেন।

যাদের বাচ্চা আছে, এই এক গেইমে আপনার বাচ্চার লেখাপড়া শুরু এবং শেষ হবে খারাপ গেইমের প্রতি আসক্তিও।ডাউনলোডকরুন : http://bit.ly/2FQWuTP

আরও পড়ুন

যেসব ক্ষেত্রে হ্যান্ড স্যানিটাইজার কাজ করে না

Shamim Reza

এবার ইঁদুরের শরীরে সফল যকৃত স্থাপন

Shamim Reza

মাস্ক ব্যবহারে নতুন নির্দেশনা বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার

Sabina Sami

করোনাভাইরাস : যেভাবে বদলে যাচ্ছে ক্লিনিং-এর প্রযুক্তি

Sabina Sami

করোনায় আক্রান্ত হলে কেমন লাগে, জানালেন সুস্থ হওয়া ৫ জন

Sabina Sami

টাক মাথাওয়ালারা রয়েছে বাড়তি করোনার ঝুঁকিতে : গবেষণা

Sabina Sami