প্রথম ঘোষণায় চমক দিয়ে যা বললেন ইরানের নতুন প্রেসিডেন্ট রাইসি

কঠোর পরিশ্রমী, বিপ্লবী ও দুর্নীতিমুক্ত প্রশাসন গড়ে তোলার অঙ্গীকার করেছেন ইরানের নতুন প্রেসিডেন্ট ও দেশটির সাবেক প্রধান বিচারপতি ইব্রাহিম রাইসি।

শনিবার রাতে দেওয়া এক বিবৃতিতে এ বিজয়কে ‘ঐতিহাসিক’ ও ‘প্রবল আবেগপূর্ণ’ বলে মন্তব্য করেন তিনি। খবর ইরনার।

ইব্রাহিম রাইসি বলেন, ১৮ জুন বিশ্ব নতুন করে ইরানি জাতির সৃষ্টি করা মহাকাব্য দেখেছে যা আধুনিক ইতিহাসে নতুন অধ্যায়ের সূচনা করেছে। আমি স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচন করলেও আপনারা যে আস্থা আমার ওপর রেখেছেন সেই আস্থাকে সঙ্গে নিয়ে আমি একটি পরিশ্রমী, বিপ্লবী ও দুর্নীতিমুক্ত প্রশাসন গড়ে তুলব।

রাইসি আরও বলেন, আপনারা সততা দিয়ে আপনাদের প্রতিশ্রুতি পালন করেছেন, আপনাদেরকে যে প্রতিশ্রুতি দিয়েছি তার প্রতি এবার সম্মান দেখানোর পালা এই খাদেমের এবং এই কাজে এক মুহূর্তের জন্যও আমি উদাসীন হব না।

ইরানের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, ইব্রাহিম রাইসি ৬১ দশমিক ৯৫ শতাংশ ভোট পেয়ে প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হয়েছেন।

১৯৭৯ সালের ইসলামি বিপ্লবের পর ইরানে এবারের নির্বাচনে সবচেয়ে কম ভোট পড়েছে। মাত্র ৪৮ দশমিক ৮ শতাংশ ভোট পড়েছে। ইব্রাহিম রাইসি দুই কোটি ৮৯ লাখ ৩৩ হাজার ৪ ভোট পেয়েছেন।

এ ছাড়া রাইসির পর দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৩৪ লাখ ১২ হাজার ৭১২ ভোট পেয়েছেন ইরানের বিপ্লবী গার্ড বাহিনীর সাবেক কমান্ডার মোহসেন রেজাই।

তৃতীয় স্থানে থাকা মধ্যপন্থি আব্দুল নাসের হেমাতি ২৪ লাখ ৭ হাজার ২০১ ভোট পেয়েছেন। এ ছাড়া রক্ষণশীল প্রার্থী আমির হোসেইন গজিজাদেহ হাশেমী পেয়েছেন ৯ লাখ ৯৯ হাজার ৭১৮ ভোট।


জুমবাংলানিউজ/ জিজি