ঢাকা বিভাগীয় সংবাদ

ফতুল্লায় প্রকাশ্যে বিদ্যুৎমিস্ত্রিকে গলাকেটে হত্যা

নিহতের লাশ ঘিরে স্বজনদের আহাজারি। ছবি: সংগৃহীত
জুমবাংলা ডেস্ক : নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় প্রকাশ্যে আব্দুর রহিম নামে এক বিদ্যুৎ মিস্ত্রিকে গলাকেটে হত্যা করেছে দুর্বত্তরা। শুক্রবার রাত ৯টার দিকে মাসদাইর গুদারাঘাট এলাকায় একটি ফোন ফ্যাক্সের দোকানে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত আব্দুর রহিম (৩৫) ওই এলাকার ইলিয়াস সরদারের বাড়ির ভাড়াটিয়া ঈমান আলীর ছেলে।

এলাকাবাসী জানান, নিহত আব্দুর রহিম পেশায় বিদ্যুৎমিস্ত্রি হলেও মাদকাসক্ত ছিলেন। নষ্ট ফারুক নামে পরিচিত ফোন ফ্যাক্সের দোকান মালিকের শ্যালক আসিফও মাদকাসক্ত। মাদকের দেনা পাওনা নিয়ে আসিফ তার দুলা ভাই নষ্ট ফারুকের দোকানে আব্দুর রহিমকে পেয়ে বাগবিতণ্ডায় জড়িয়ে পড়েন। এক পর্যায়ে আব্দুর রহিমের গলায় ছুরিকাঘাত করেন আসিফ।


এ সময় দোকানের ভেতর রহিম লুটিয়ে পড়লে তাকে ধাক্কা দিয়ে বাইরে ফেলে দেন আসিফ। এরপর ঈমান আলী খবর পেয়ে আশপাশের লোকজন নিয়ে তার ছেলে রহিমকে উদ্ধার করে শহরের খানপুর হাসপাতালে নিয়ে যান।

সেখানে জরুরি বিভাগের চিকিৎসক রহিমকে মৃত ঘোষণা করেন। এ ঘটনায় ফারুক ও তার শ্যালক আসিফের বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

তবে নিহত রহিমের বাবা ঈমান আলী বলেন, গুদারাঘাট এলাকায় ফারুকের ফোন ফ্যাক্সের দোকানের সামনে রহিমকে রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখে লোকজন আমাকে খবর দেয়। এরপর এসে স্থানীয় লোকজনদের সহযোগিতায় রহিমকে উদ্ধার করে খানপুর হাসপাতাল নিয়ে আসি। কে বা কারা রহিমকে হত্যা করেছে এ বিষয়ে এখনো কিছুই জানতে পারিনি।

ঘটনাস্থলে যাওয়া ফতুল্লা মডেল থানার এসআই খালেক বলেন, লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য জেনারেল হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। নিহতের গলায় ধারাল অস্ত্র দিয়ে আঘাত করা হয়েছে।


যাদের বাচ্চা আছে, এই এক গেইমে আপনার বাচ্চার লেখাপড়া শুরু এবং শেষ হবে খারাপ গেইমের প্রতি আসক্তিও।ডাউনলোডকরুন : http://bit.ly/2FQWuTP

আরও পড়ুন

দুই ঘণ্টা পর নিয়ন্ত্রণে এলো বনশ্রীর কারখানার আগুন

Saiful Islam

জেল খেটে মুক্তি পেল নিরাপরাধ সালাম ঢালী

Shamim Reza

ইজ্জত রক্ষায় নদীতে ঝাঁপ দিলো এতিম কিশোরী

Saiful Islam

গাজীপুরে যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রীর উদ্যোগে ২শ’টি টিউবওয়েল বিতরণ

Saiful Islam

একসাথে তিন সন্তান জন্ম দিলেন তসলিমা

Shamim Reza

সেই ‘মহা ক্ষমতাধর’ এসআই রূপন ক্লোজড

Saiful Islam