Views: 52

আন্তর্জাতিক

বার্লিনে গৃহহীনদের জন্য হোটেলের দরজা খোলা


আন্তর্জাতিক ডেস্ক: একে তো করোনা মহামারি অন্যদিকে হাড় কাঁপানো শীত, যার কারণে বার্লিনের গৃহহীনদের অবস্থা করুণ৷ এমন পরিস্থিতিতে তাদের জন্য সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছে অনেক হোটেল৷ খবর ডয়চে ভেলের।

ক্রিস্টিয়ানের থাকার নিজস্ব কোন জায়গা নেই৷ রাস্তায়ই কাটে তার দিনরাত৷ গ্রীষ্মে হয়তো মানিয়ে নেয়া যায়, কিন্তু বিপত্তিটা হয় তীব্র ঠাণ্ডায়৷ এবার অবশ্য মাথা গোঁজার আরামদায়ক ঠাঁই পেয়েছেন ক্রিস্টিয়ান৷ নভেম্বর থেকেই তার মতো ভবঘুরে গৃহহীনরা বার্লিনের একটি হোটেল থাকার জায়গা হয়েছে৷

ক্রিস্টিয়ান বলেন, আবর্জনার স্তূপে ঘুমানোটা খারাপ ছিল না তবে হোটেলের বিছানা তার চেয়ে অনেক ভালো৷

এর আগের শীতগুলোতে তিনি ক্যাথলিক চার্চ পরিচালিত আশ্রয়কেন্দ্রে রাত কাটিয়েছেন৷ সেখানে গৃহহীনদের জন্য ৪০টি বিছানা বরাদ্দ ছিল৷

আশ্রয়কেন্দ্রের পরিচালক ভল্ফগাং ভিলশ জানান, এ বছর করোনার কারণে পরিস্থিতি ভিন্ন৷ সামাজিক দূরত্ব বাজায় রাখার কথা ভেবে সংখ্যা কমিয়ে অর্ধেক করা হয়েছে৷ তাছাড়া ছোট কক্ষে কয়েকজন একসাথে রাত কাটানো বা মেঝেতে বিছানা করে থাকাও সম্ভব নয়৷


যেই হোটেলগুলো গৃহহীনদের জন্য এগিয়ে এসেছে তার মধ্যে পেনজিয়ন রাইটার একটি৷ এজন্য অবশ্য নগর প্রশাসন থেকে তারা কিছুটা ক্ষতিপূরণ পাবে৷ বর্তমান পরিস্থিতিতে হোটেল ব্যবসায়ীদের যা খুবই প্রয়োজন৷ করোনার কারণে পর্যটক বা ব্যবসায়িক ট্যুর প্রায় বন্ধ থাকায় অনেকদিন থেকেই হোটেল ব্যবসায় মন্দা যাচ্ছে৷

হিমশীতল তাপমাত্রা

গৃহহীনদের জন্য মাথা গোঁজার একটি জায়গা যে কতোটা জরুরি তা বোঝা গেছে গত কয়েকদিনের ঠাণ্ডায়৷ তাপমাত্রা নেমেছিলো মাইনাস ১৫ ডিগ্রি সেলসিয়াসের নীচে, যা রাস্তায় ঘুমানোর জন্য মারাত্মক ঝুঁকিপূর্ণ৷ এমন জরুরি অবস্থায় গৃহহীনদের জন্য বার্লিনের হোটেলগুলোকে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিতে আবেদন জানায় বার্লিনের চ্যারিটি সংস্থা৷ তাদের ডাকে সাড়া দেয় হোটেলগুলোও৷ গৃহহীনদের জন্য মোট এক হাজার ৪২৬ টি শয্যা নিশ্চিত করা সম্ভব হয় বলে জানান, বার্লিন স্যোশাল সার্ভিসের মুখপাত্র স্টেফান স্ট্রাস৷ ঘুমানোর জন্য শুধু বিছানাই নয়, অনেক হোটেল গৃহহীনদের জন্য সকালের নাস্তা এবং রাতের খাবারে ব্যবস্থাও করে৷

গৃহহীনদের নতুন সম্ভাবনা

গৃহহীনদের দেখাশোনা দায়িত্বে রয়েছেন সিস্টার আরনল্ড৷ তাদের সাথে কথা বলা এবং তাদের মনের অবস্থা বোঝাই তার প্রধান কাজ৷ হোটেলে থাকা ভবঘুরেদের নিয়ে তিনি আশাবাদী৷

সিস্টার আরনল্ড বলেন, জীবনের সব আশা ছেড়ে দেওয়া হতাশাগ্রস্থ গৃহহীন এই পুরুষেরা কয়েক সপ্তাহ হোটেলে সুন্দরভাবে আরাম করে থাকায় হয়তো তাদের বোধদয় হবে৷ তারা চাকরি খুঁজবে, থাকার জন্য বাড়ি ভাড়া নেবেন৷ তাদের উন্নত জীবনের সম্ভাবনা আর সুযোগ রয়েছে৷


যাদের বাচ্চা আছে, এই এক গেইমে আপনার বাচ্চার লেখাপড়া শুরু এবং শেষ হবে খারাপ গেইমের প্রতি আসক্তিও।ডাউনলোডকরুন : https://play.google.com/store/apps/details?id=com.zoombox.kidschool


আরও পড়ুন

গবেষণা করতে গিয়ে ইসলাম গ্রহণ করলেন কানাডিয়ান নারী

Sabina Sami

ফোনে হ্যালো নয়, বলুন ‘জয় বাংলা’: মমতা

Saiful Islam

অফিস থেকে ছুটি পেতে তরুণের একি কাণ্ড!

Saiful Islam

ফোনে হ্যালো নয়, বলুন ‘জয় বাংলা’: মমতা

Shamim Reza

আসছে হিলারি ক্লিনটনের রাজনৈতিক উপন্যাস ‘স্টেইট অব টেরর’

Shamim Reza

ইন্দোনেশিয়ায় স্বর্ণ খনিতে ধস, ৬ জনের প্রাণহানি

Saiful Islam