in ,

বাসর ঘরের পরির্বতে বরের ঠাঁই হলো কারাগারে

জুমবাংলা ডেস্ক : শেরপুরের নালিতাবাড়ীতে বাল্য বিবাহের চেষ্টার অভিযোগে মোশাররফ হোসেন (৩০) নামের দুই সন্তানের জনক এক বরকে ভ্রাম্যমান আদালত তিন মাসের কারাদণ্ড দিয়েছেন। দন্ডপ্রাপ্ত মোশাররফ হোসেন পাশ্ববর্তী ময়মনসিংহের হালুয়াঘাট উপজেলার ধরাবুন্নি গ্রামের বাসিন্দা। গতকাল শনিবার (১৮ সেপ্টেম্বর) রাতে ১৩ বছর বয়সী আপন চাচাতো বোনের সাথে বাল্যবিয়ের আয়োজনের সময় বরকে এ দন্ডাদেশ দেওয়া হয়।

উপজেলা প্রশাসন সুত্রে জানা গেছে, পার্শ্ববর্তী ময়মনসিংহ জেলার হালুয়াঘাট উপজেলার ধরাবুন্নি গ্রামের বাসিন্দা দুই সন্তানের জনক মোশারফ হোসেনের গত ছয় মাস আগে স্ত্রীর সাথে বিবাহ বিচ্ছেদ হয়। বিচ্ছেদ হওয়ার পর তের বছর বয়সী পিতৃহারা আপন চাচাতো বোনকে বিয়ের সিদ্ধান্ত নেয় মোশারফ। পারিবারিকভাবে বিয়ের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী শনিবার (১৮ সেপ্টেম্বর) এতিম কিশোরী পাত্রীকে ঢাকা তার মায়ের কাছ থেকে নালিতাবাড়ী উপজেলার রুপনারায়নকুড়া ইউনিয়নের আয়নাতলী গ্রামের নানার বাড়ি আনা হয়। সেখানে রাত ১০ টার দিকে কিশোরীর বিয়ের যাবতীয় আয়োজন চলছিলো।

এমন সময় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বিয়ে বাড়িতে ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযান পরিচালনা করেন নালিতাবাড়ী উপজেলা প্রশাসন। পরে বাল্যবিয়ের আয়োজন বন্ধ করে ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে বরকে তিন মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড প্রদান করেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট হেলেনা পারভীন। বিষয়টি নিশ্চিত করে নালিতাবাড়ী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট হেলেনা পারভীন বলেন, বাল্য বিবাহ বন্ধে এ ধরনের অভিযান অব্যাহত থাকবে।