in , ,

বিয়ের প্রলোভনে ‘ধর্ষণ’, সেই ভিডিও ছাড়া হলো ইন্টারনেটে

জুমবাংলা ডেস্ক : বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে প্রেমিকাকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে এক যুবকের বিরুদ্ধে। ধর্ষণের সেই ভিডিও ধারণ করাও অভিযোগ ওই প্রেমিকের বিরুদ্ধে। পরে তাদের মধ্যে মনোমালিন্য হলে ভিডিওটি ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেওয়ার হুমকি দেয় প্রেমিক। একপর্যায়ে গোপনে অন্যত্র বিয়ে করে ভিডিওটি ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেয় ওই যুবক।

ঘটনাটি ঘটেছে গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলার তেলিহাটি ইউনিয়নে। এ ঘটনায় ভুক্তভোগী এই প্রেমিকার বাবা বাদী হয়ে আজ বুধবার দুপুরে শ্রীপুর থানায় তিন ব্যক্তির নামে অভিযোগ দায়ের করেন। অভিযুক্ত যুবকের নাম নাইম মৃধা (২৫) । তিনি উপজেলার তেলিহাটি মোড় এলাকার স্টেশনারী ব্যবসায়ী।

ভুক্তভোগীর বাবার সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, ভুক্তভোগী স্কুলে আসা যাওয়ার পথে নাইমের দোকান থেকে বিভিন্ন সময় খাতা কলম কিনতো। এরই সূত্র ধরে নাইমের সঙ্গে তার পরিচয় হয়। পরিচয় থেকে তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। নাইম গোপনে তাকে বিভিন্ন স্থানে নিয়ে যেত। এক বছর আগে মাওনা চৌরাস্তার কোনো একটি হোটেলে নিয়ে তাকে ধর্ষণ করে নাইম। এ সময় নাইম ধর্ষণের ভিডিও ধারণ করে রাখে।

কিছুদিন পরে নাইম ভুক্তভোগীকে দেখা করতে বলে। সেসময় নাইম ভিডিওর কথা বলে আবারও অনৈতিক কাজের প্রস্তাব দেয়। কিন্তু এই প্রস্তাবে সে রাজি না হলে নাইম পাঁচ লাখ টাকা দাবি করে। টাকা না দিলে ভিডিওটি ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেওয়ার হুমকি দেয় নাইম।

ভুক্তভোগীর বাবা আরও অভিযোগ করেন, তিন মাস আগে নাইম গোপনে অন্যত্র বিয়ে করে। এরপর মোবাইলে ধারণ করা ভিডিওটি ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেয়। পরে তিনি মেয়ের কাছে ঘটনার বিস্তারিত জানেন এবং গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে নাইমের আত্মীয় ও সহযোগী একই এলাকার নজরুল ইসলাম ও সজীব মৃধার কাছে ভিডিও ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেওয়ার বিষয়ে জানতে চান। এতে নজরুল ও সজীব মৃধা ক্ষিপ্ত হয়ে অপহরণসহ হত্যার হুমকি দেন।

এ বিষয়ে শ্রীপুর থানার পরিদর্শক অপারেশন গোলাম সারোয়ার জানান, তিনি ভুক্তভোগীর বাবার অভিযোগ পেয়েছেন। তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।