Coronavirus (করোনাভাইরাস) আন্তর্জাতিক

বেরিয়ে এলো গোপন খবর, চীনে প্রথম করোনা রোগীর মৃত্যু হয়েছিল ৭ বছর আগে

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : চীনের উহান থেকে ছড়িয়ে পরা করোনাভাইরাস সারা বিশ্বকে পাল্টে দিয়েছে। ভয়ঙ্কর এক পরিবেশে সময় কাটাচ্ছেন বিশ্ববাসী। এই অবস্থায় ভ্যাকসিন আবিস্কারের চেষ্টার পাশিপাশি এর উৎপত্তি নিয়ে গবেষণা করে যাচ্ছেন বিজ্ঞানীরা। এরমধ্যেই দ্য সানডে টাইমসে প্রকাশিত প্রতিবেদনে দাবি করা হয়েছে, সাত বছর আগে চীনের উহান ইনস্টিটিউট অব ভাইরোলজিতে পাঠানো ভাইরাসের নমুনার সঙ্গে অনেকটা মিল রয়েছে নভেল করোনাভাইরাসের।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে যে ২০১৩ সালে একটি ‘ফ্রোজেন স্যাম্পেল’ পাঠান হয় উহানের এই সেন্টারে। সেটি আসলে বাদুরের দেহ থেকে পাওয়া এক ধরনের ভাইরাস। দক্ষিণ চিনে একটি খনিতে কর্মরত ছ’জন শ্রমিকদের দেহে এই ভাইরাস পাওয়া যায়। তাঁরা জানিয়েছিল যে সেই সময় খনিতে বাদুড়ের মল পরিস্কার করছিলেন তাঁরা। এরপরই আচমকা নিউমোনিয়ায় ভুগতে শুরু করেন ওই ছ’জন শ্রমিক।


জানা গিয়েছে এদের মধ্যে তিনজনের মৃত্যু হয় ওই করোনাভাইরাসের কারণেই, যা বাদুড়ের মল থেকে সংক্রামিত হয়েছে। এমনটাই জানিয়েছেন ওই রোগীদের যিনি দেখভাল করেছেন সেই সুপারভাইজার। উল্লেখ্য, উহান ইনস্টিটিউট অফ ভাইরোলজিতে বাদুড়ের দেহ থেকে আসা সারস-করোনাভাইরাসের উপর কাজ করা শি জিনগেলিও ওই খনিতেই তাঁর গবেষণার কাজ করতেন।

গবেষক শি অবশ্য পরিচিত ‘ব্যাট ওম্যান’ নামে। বাদুড়ের গুহা থেকে গাছ কোনও জায়গাই গবেষণার জন্য খুঁজতে বাকি রাখেননি শি। ২০২০ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে প্রকাশিত একটি পেপারে তিনি উল্লেখ করেন যে করোনাভাইরাসের সঙ্গে ৯৬.২ শতাংশ মিল আছে তেমনই একটি ভাইরাস যার নাম RaTG13, সেটি উহানে পাওয়া যায় ২০১৩ সালে। সানডে টাইমস জানতে পারে এই ভাইরাসই হল খনিতে পাওয়া সেই করোনাভাইরাস।

তবে প্রকাশিত পেপারে বলা হয়েছে যে ফ্রোজেন স্যাম্পেল পাঠানো হয়েছিল তার সঙ্গে এখনকার ভাইরাসের বেশ কিছু তারতম্য রয়েছে। তাঁদের মত বিবর্তনের ফলেই এমনটা সম্ভব। এদিকে গোটা বিষয়টি নিয়ে উহান ল্যাবে যোগাযোগ করা হলে তাঁরা কোনওরকম উচ্চবাচ্য করেননি।

প্রসঙ্গত, চলতি বছরের মে মাসে উহান ইনস্টিটিউট অফ ভাইরোলজির ডিরেক্টর জানিয়েছিলেন যে তাঁদের কাছে ওই RaTG13-ভাইরাসের কোনও জীবন্ত স্যাম্পেল নেই। তাই এই কেন্দ্রকে ভাইরাস ছড়িয়ে পরার যে কথা বলা হচ্ছে, তা অবাস্তব। যদিও মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প মে মাসে বলেছিলেন যে তিনি ইন্টেলিজেন্স সার্ভিসের থেকে বেশ কিছু প্রমাণ পেয়েছেন যেখানে দেখা গিয়েছে উহানের এই কেন্দ্র থেকেই ভাইরাসটি ছড়িয়েছে বিশ্বে।


যাদের বাচ্চা আছে, এই এক গেইমে আপনার বাচ্চার লেখাপড়া শুরু এবং শেষ হবে খারাপ গেইমের প্রতি আসক্তিও।ডাউনলোডকরুন : http://bit.ly/2FQWuTP


আরও পড়ুন

অভিবাসীদের ভিসা নিষেধাজ্ঞা শিথিল যুক্তরাষ্ট্রের

Shamim Reza

তুরস্ককে থামাতে ভূমধ্যসাগরে সেনা বাড়াবে ফ্রান্স

azad

ইউএনও হিসেবে যোগ দেওয়ার ৫ দিনের মাথায় করোনায় আক্রান্ত এই কর্মকর্তা

Sabina Sami

ফেঁসে যেতে পারেন মেক্সিকোর সাবেক প্রেসিডেন্ট

azad

২০২১ সাল পর্যন্ত ফিফা, এএফসি’র ম্যাচ স্থগিত

azad

ট্রাম্প দেশকে ‘বিভক্ত করেছেন’, বললেন বাইডেন ও হ্যারিস

mdhmajor