ব্যবসায়ী হত্যার ঘটনায় গাইবান্ধা থানার ওসি বদলি

জুমবাংলা ডেস্ক : গাইবান্ধার পাদুকা ব্যবসায়ী হাসান আলী হত্যার ঘটনাকে কেন্দ্র করে সদর থানার ওসি মো. মাহফুজুর রহমানকে অবশেষে রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশে বদলি করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার অতিরিক্ত মহাপুলিশ পরিদর্শকের কার্যালয়ের এক আদেশে ওসি মাহফুজুর রহমানকে বদলির আদেশ দেয়া হয়।

‘হাসান হত্যার প্রতিবাদ মঞ্চ’ থেকে ওই হত্যাকাণ্ডে ওসি মাহফুজুর রহমান, ওসি (তদন্ত) মজিবর রহমান ও এএসআই মোশাররফ হোসেনকে জড়িত থাকার অভিযোগ এনে তাদের গ্রেফতার এবং দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে দীর্ঘদিন থেকে আন্দোলন চালিয়ে আসছে। এর আগে ওই দাবির পরিপ্রেক্ষিতে সদর থানার ওসি (তদন্ত) মজিবর রহমান ও এএসআই মোশাররফ হোসেনকে গাইবান্ধা পুলিশ লাইনে ক্লোজ করা হয়। পরে তাদের নীলফামারীতে বদলি করা হয়।

ওসি মাহফুজুর রহমান এতদিন থানায় দায়িত্ব পালন করার পর তার বদলির আদেশ আসে।

উল্লেখ্য, গাইবান্ধা জেলা শহরের খানকা শরীফ সংলগ্ন নারায়ণপুর এলাকার বাসিন্দা জেলা আওয়ামী লীগের বহিষ্কৃত উপ-দপ্তর সম্পাদক কুখ্যাত দাদন ব্যবসায়ী মাসুদ রানার বাড়ি থেকে গত ১০ এপ্রিল ব্যবসায়ী হাসান আলীর (৪৫) ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। তাকে হত্যার পর মাসুদ রানার বাড়ির বাথরুমে ঝুলিয়ে রাখা হয় বলে পরিবারের পক্ষ থেকে দাবি করা হয়।

এ ব্যাপারে সদর থানায় নিহত হাসান আলীর স্ত্রী বীথি বেগম বাদী হয়ে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। নিহত হাসান আলী শহরের থানাপাড়া এলাকার মৃত হজরত আলীর ছেলে এবং আফজাল সুজ গাইবান্ধা শাখার সাবেক মালিক।


জুমবাংলানিউজ/এসআই