ভাড়া বাসায় বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থী রহস্যজনক মৃত্যু

জুমবাংলা ডেস্ক : বরিশালে বেসরকারি ইউনিভার্সিটি অব গ্লোবাল ভিলেজের তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী মালিহা ফরিদী সারার (২০) রহস্যজনক মৃত্যু হয়েছে।

শনিবার (৮ মে) রাত দেড়টায় শের-ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে তাকে মৃত ঘোষণা করেন জরুরি বিভাগের চিকিৎসক। ময়না তদন্তের জন্য তার মরদেহ হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে পুলিশ।

সারা বরিশাল জেলার বাকেরগঞ্জ উপজেলার রঙ্গশ্রী ইউনিয়নের রূনসী গ্রামের অবসরপ্রাপ্ত সরকারি কর্মকর্তা একেএম ফরিদ আহমদের মেয়ে।

জানা গেছে, মালিহা নগরীর কলেজ এভিনিউ এলাকার ৩ নম্বর লেনের একটি ভবনের ফ্লাটে ভাড়া থাকতেন। মো. তানভীর রাফি নামে এক চাকরিজীবী যুবকের সঙ্গে সম্পর্ক ছিল সারার। বাড়িওলার কাছে জমা দেয়া ভাড়াটিয়ার তথ্য ফরমে মো. তানভীর রাফি নামে এক ব্যক্তিকে স্বামী হিসেবে উল্লেখ করেছিলেন তিনি।

কোতয়ালী মডেল থানার ওসি মো. নুরুল ইসলাম জানান, ওই বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রীর সঙ্গে সরকারি বরিশাল কলেজের অনার্সের শিক্ষার্থী ও নগরীর একটি ভিভো ফোন শো রুমের এক কর্মচারীর প্রেমের সম্পর্ক ছিল। ওই ছেলের বাবা-মায়ের দাবি তারা শনিবার রাতে ওই বাসায় গিয়ে ওই ছাত্রীকে গলায় ফাঁস দেয়া অবস্থায় পেয়েছেন। তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নেয়ার পর মৃত ঘোষণা করেন চিকিৎসকরা।

তবে ওসি নুরুল ইসলামের দাবি, ওই ছাত্রীর গলায় ফাঁস দেয়ার কোনো চিহ্ন কিংবা দাগ ছিল না। তার মৃত্যু রহস্যাবৃত্ত। এ কারণে তার মৃত্যুর কারণ নিশ্চিত হতে ময়না তদন্তের জন্য লাশ মর্গে পাঠানো হয়েছে। ময়না তদন্ত রিপোর্ট পাওয়ার পর এ বিষয়ে আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার কথা জানান ওসি।


জুমবাংলানিউজ/এসআর