মদ খেয়ে নারীকে ধর্ষণচেষ্টা, প্রমাণ রেখে গেল শরীর কামড়ে!

ধর্ষণ

প্রতীকী ছবি

টাঙ্গাইলের সখীপুরে এক আদিবাসী নারীকে (৪২) ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগ ওঠেছে। আহত ওই নারী টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। গতকাল বৃহস্পতিবার রাতে উপজেলার হাতিবান্ধা ইউনিয়নের একটি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় শনিবার বিকেলে মামলা করা হবে বলে ওই নারীর দেবর জানিয়েছেন।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, বৃহস্পতিবার রাতে একই এলাকার টেংগু সরকারের ছেলে দীনা সরকার (৩৪), নারায়ণ চন্দ্র সরকারের ছেলে মন্টু সরকার ও ময়নাল মিয়ার ছেলে সবদুল মিয়া মদপান করে ওই নারীর বাড়িতে যান। পরে ওই নারীকে বাইরে ডেকে এনে ধর্ষণের চেষ্টা করেন। এ সময় দীনা সরকার মদ্যপ অবস্থায় নারীটির মুখমণ্ডলসহ শরীরের বিভিন্ন অঙ্গে কামড়ে গুরুতর জখম করেন। পরে শুক্রবার সকালে তাকে সখীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক ফরিদ হোসেন বলেন, ওই নারীর শরীরের বিভিন্ন অঙ্গে কামড়ের চিহ্ন রয়েছে। ধর্ষণ চেষ্টার কথা শোনার পর প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

সখীপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) একে সাইদুল হক ভূঁইয়া মুঠোফোনে বলেন, ঘটনা শুনেই পুলিশ পাঠিয়েছিলাম। তার সঙ্গে যা হয়েছে তা খুবই দুঃখজনক। লিখিত অভিযোগ পেলে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

আজকের জনপ্রিয়:
>> আয়ু কমে যাওয়ার ৭ কারণ
>> সন্তানদের যে আমলের অভ্যাস করানো জরুরি
>> ছেলেদের যে বিষয়গুলো মেয়েরা সবার আগে খেয়াল করে


Share:





জুমবাংলানিউজ/ জিজি