বিনোদন

মধুহীন সৌরভ, ঘর ভাঙছে জনপ্রিয় এই টেলি তারকা জুটির

বিনোদন ডেস্ক : ভক্তদের বিশ্বাস করতে কষ্ট হলেও এটাই সত্যি, বিয়ের বাঁধন খুলছেন ছোটপর্দার বড় তারকা মধুমিতা সরকার-সৌরভ চক্রবর্তী। যাঁরা ২০১৫-র জুলাইয়ে রেজিস্ট্রি করে একসঙ্গে পথ হাঁটার শপথ নিয়েছিলেন। কী এমন হল যে মাত্র চার বছরেই থমকে গেলেন তাঁরা?

কোলাজের প্রথম ছবি এখন অতীত। কোলাজের দ্বিতীয় ছবিই বাস্তব। কয়েকমাস আগেও দেখে বোঝা যায়নি, তলায় তলায় ভাঙন ধরেছে। ভক্তদের বিশ্বাস করতে কষ্ট হলেও এটাই সত্যি, বিয়ের বাঁধন খুলছেন (Divorce) ছোটপর্দার বড় তারকা মধুমিতা সরকার-সৌরভ চক্রবর্তী ।

যাঁরা ২০১৫-র জুলাইয়ে রেজিস্ট্রি করে একসঙ্গে পথ হাঁটার শপথ নিয়েছিলেন। কী এমন হল যে মাত্র চার বছরেই থমকে গেলেন তাঁরা? উভয়েই জানিয়েছেন, ইদানিং মনে হচ্ছিল দু-জনে দু-জনের থেকে ভিন্ন। তাঁদের সত্ত্বা ভিন্ন। দৃষ্টভঙ্গি মিলছিল না কিছুতেই। এক ছাদের নীচে থেকেও যেন একে অন্যের থেকে অনেক দূর গ্রহের বাসিন্দা হয়ে যাচ্ছিলেন। তাই সম্পর্ক আর বয়ে না বেরিয়ে তাকে সম্মান দিয়ে বিচ্ছেদের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন মধুমিতা-সৌরভ।

২০১১-য় প্রথম দেখা মধুমিতা-সৌরভের। ‘সবিনয় নিবেদন’ ধারাবাহিকের সেটে। সেই সেট থেকেই প্রেম। অভিনয়ের রসায়ন ছাপ ফেলেছিল বাস্তব জীবনেও। যত দিন গেছে, সেই কেমিস্ট্রি আরও গাঢ় হয়েছে। ওঁরাও একের পর এক কাজ করেছেন ‘আলো’, ‘আজ আড়ি কাল ভাব’, ‘মেমবউ’, ‘কেয়ার করি না’, ‘বোঝে না সে বোঝে না’-র মতো জনপ্রিয় ধারাবাহিকে।

মজার কথা, সবিনয় নিবেদন-এর সেটে বিয়ের যে দৃশ্য ছিল তাতে নাকি পুরোহিত আসল ছিলেন। আর মধুমিতার সিঁথি সৌরভ রাঙিয়েছইলেন আসল সিঁদুরে। তাই ২০১৫-য় রেজিস্ট্রির সময় তাঁরা বড় গর্ব করে বলেছিলেন, তাঁদের বিয়ে তো হয়েই গেছে সেই কবে! পুরোহিতের মন্ত্র উচ্চারণ, সিঁদুরদান, সপ্তপদী—বিয়ের সমস্ত অনুষ্ঠান কমপ্লিট। শুধু আইনের শিলমোহর ছিল না। তাই সেটা সাড়ছেন খুবই সাদামাঠা ভাবে। সেই গর্ব এভাবে ধুলোয় মিশবে, বোধহয় দুঃস্বপ্নেও ভাবেননি কেউ!

খবর, গত মাসেই তাঁদের আনন্দপুরের ফ্ল্যাট থেকে শিফট করেছেন মধুমিতা। তার মধ্যেই চলছে তাঁর ওয়েব সিরিজের শ্যুটিং। এই মুহূর্তে সেই কাজেই কলকাতার বাইরে রয়েছেন তিনি। অন্যদিকে, সৌরভও ব্যস্ত তাঁর প্রযোজনা সংস্থা ট্রিকস্টার-এর কাজ নিয়ে।

এই বছরের শেষেই ওয়েবে মাধ্যমে ডেবিউ আসছেন মধুমিতা। পরিচালক অয়ন চক্রবর্তীর ‘দ্য জাজমেন্ট ডে’ ওয়েব সিরিজে। সৌরভও প্রস্তুতি নিচ্ছেন পরবর্তী প্রযোজনার। বিবাহবিচ্ছেদের আইনি প্রক্রিয়া ইতিমধ্যেই শুরু হয়ে গিয়েছে বলে খবর। আগামী দিনে মনখারাপ লাগলে এভাবেই হয়ত একা একাই বেরিয়ে পড়বেন মধুমিতা। ওপরে দেখানো ছবির মতো। আর সৌরভ? ‘মধু’হীন এভাবেই কি আলো খুঁজবেন জীবনের?



জুমবাংলানিউজ/এসআর




আপনি আরও যা পড়তে পারেন


সর্বশেষ সংবাদ