মহাকাশে স্টেশন স্থাপনে তিন চীনা নভোচারীর যাত্রা

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি ডেস্ক : নতুন মহাকাশ স্টেশন স্থাপনে করতে প্রথমবারের মতো মহাকাশে অভিযান চালিয়েছে চীন। শেনঝু-১২ নামে চীনা মহাকাশযানটি তিন নভোচারীকে নিয়ে সফলভাবে যাত্রা করেছে। খবর বিবিসির।

এখন পর্যন্ত এই অভিযানকে চীনের দীর্ঘতম ক্রু মহাকাশ মিশন বলে মনে করা হয়। তাছাড়া গত পাঁচ বছরের মধ্যে এবারই প্রথম এই অভিযান শুরু হয়। বৃহস্পতিবার বেইজিংয়ের স্থানীয় সময় সকাল ৯টা ২২ মিনিটে চীনের উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলীয় গানসু প্রদেশের জিউকুয়ান স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণ কেন্দ্র থেকে যাত্রা শুরু করে শেনঝু-১২ নামের মহাকাশযানটি।

ঐতিহাসিক এই অভিযানে অংশ নেয়া তিন নভোচারী হলেন নিয়ে হাইশেং (৫৬), লিউ বোমিং (৫৪) ও তাং হংবো (৪৫)। তারা পৃথিবী থেকে ৩৮০ কিলোমিটার ওপরে তিয়ানহে মডিউলে তিন মাস অবস্থান করবেন।

এর আগেও মহাকাশযাত্রা করেছেন নিয়ে হাইশেং। বাসের চেয়ে সামান্য বড় আকারের তিয়ানহে মডিউলে বিভিন্ন প্রযুক্তি ও কারিগরি দিকসহ জীবন-রক্ষাকারী ব্যবস্থাগুলো পরীক্ষা করে দেখবেন নভোচারীরা।

স্পেস স্টেশনে একটি আসন্ন অভিযানে নভোচারীরা ছয় মাস সময় পার করবেন বলে পরিকল্পনা করা হচ্ছে। চীনের নভোচারী হিসেবে মহাকাশে এটাই সবচেয়ে দীর্ঘ সময়ের যাত্রা। নভোচারীরা স্পেস স্টেশনের নির্মাণ এগিয়ে নিতে কাজ করবেন।

মহাকাশে চীনের স্পেস স্টেশন নির্মাণে যে ১১টি অভিযান পরিচালিত হওয়ার কথা তার মধ্যে এটি তৃতীয়। ১১টির মোট চারটিতে নভোচারী পাঠানোর কথা। স্টেশনটির নির্মাণ শুরু হয়েছে গত এপ্রিলে সবচেয়ে বড় মডিউল তিয়ানহে উৎক্ষেপণের মধ্য দিয়ে। এরপর আরও দুটি মডিউল যুক্ত করা হবে।


জুমবাংলানিউজ/এসআর