in

মাদকে তছনছ নায়িকা একার স্বাভাবিক জীবন!

বিনোদন ডেস্ক : এক সময় ঢাকাই সিনেমার আলোচিত নায়িকা একা। দীর্ঘদিন পর্দার আড়ালে থাকলেও নেতিবাচক শিরোনামে ফের আলোচনায় এসেছেন তিনি। গৃহকর্মী নির্যাতনের দায়ে শনিবার (৩১ জুলাই) রাতে তাকে আটক করে হাতিরঝিল থানা পুলিশ। পরে তার বাসা থেকে মাদকদ্রব্য উদ্ধার করে পুলিশ। এ ঘটনায় তার বিরুদ্ধে দুটি মামলা হয়েছে। এ সব মামলায় তিনি কারাগারে আছেন।

গৃহকর্মীকে নির্যাতন মামলার তদন্ত করতে গিয়ে একার বিরুদ্ধে নিয়মিত মাদক গ্রহণের তথ্য পেয়েছে পুলিশ। নিয়মিত মাদক সেবন করায় প্রায় স্বাভাবিক জীবনে নেই ঢাকায় চলচ্চিত্রের অশ্লীলতা যুগের এই নায়িকা।

শনিবার রাতে হাতিরঝিল থানায় গিয়ে দেখা যায়, থানায় অফিসারের রুমে বসে আছেন একা। তার বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন ছিল। সে সময় থানায় অস্বাভাবিক আচরণ করছিলেন তিনি। তার চেহারায় ছিল না গ্লামারের ছাপ। নিয়ন্ত্রণহীন মেজাজে থানার ভেতরে কখনো সংবাদকর্মী আবার পুলিশ সদস্যদের উপর চড়াও হচ্ছেন। একপর্যায়ে অসুস্থতার ভান করে এক নারী পুলিশ সদস্যকে ধাক্কা মেরে দেন একা।এতো কিছুর পরও তাকে কিছুই বলেনি পুলিশ। নায়িকার এমন অস্বাভাবিক আচরণের মধ্যে হঠাৎ এক গোয়েন্দা কর্মকর্তা এসে বলেন, ‘ভাই, আপনারা ওনার (একা) কাছে যাইয়েন না। তিনি ফুললি লোডেড।’

হাতিরঝিল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবদুর রশিদ বলেন, তিন মাস ধরে হাজেরা বেগম নামে এক গৃহকর্মী পাঁচ হাজার টাকা মাসিক বেতনে একার বাসায় কাজ করে আসছিলেন। বাসা পরিবর্তনের সময় হাজেরাকে অতিরিক্ত কাজ করতে বলেন একা। আরও অন্য কাজ থাকায় হাজেরা বেগম আপত্তি করেন। একপর্যায়ে হাজেরা তার বর্তমান মাসের বেতনও চান। কিন্তু আগের দু’মাসের বেতন পরিশোধ করেন একা। জুলাই মাসের বেতন চাইলে একা ক্ষিপ্ত হয়ে “>গৃহকর্মীকে মারধর করেন। খবর পেয়ে প্রতিবেশী ও আশপাশের লোকজন একার বাসা ঘেরাও করেন। তারা ৯৯৯-এ কল করে বিষয়টি অবহিত করেন। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে গেলে একা ভেতর থেকে দরজা বন্ধ রাখেন। পরে পুলিশ দরজা ভেঙে একাকে আটক থানায় নিয়ে আসে। এ সময় তার বাসা থেকে পাঁচ পিস ইয়াবা, ৫০ গ্রাম গাঁজা এবং অর্ধেক বোতল মদ পাওয়া যায়। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে নিয়মিত মাদক সেবনের কথা স্বীকার করেন এই অভিনেত্রী।

তবে একার দাবি, ৩০ হাজার টাকার জন্য গৃহকর্মী হাজেরা তাকে ফাসানোর চেষ্টা করছে।

এদিকে গৃহকর্মীকে নির্যাতনের ঘটনায় চিত্রনায়িকা একাকে হাতিরঝিল থানায় হত্যাচেষ্টা ও মাদকদ্রব্য আইনে করা পৃথক মামলায় কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত। আজ রবিবার (১ আগস্ট) ঢাকা মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ জসীমের আদালত এই আদেশ দেন।

এর আগে মামলা তদন্ত কর্মকর্তা হাতিরঝিল থানায় এসআই মো. ফয়সাল একাকে আদালতে হাজির করেন। এরপর আসামির বিরুদ্ধে পৃথক দুই মামলায় তিনদিন করে মোট ছয়দিনের রিমান্ডের আবেদন করেন। অন্যদিকে আসামি পক্ষের আইনজীবীরা রিমান্ড বাতিল চেয়ে জামিনের আবেদন করেন। উভয় পক্ষের শুনানি শেষে আদালত রিমান্ড ও জামিন আবেদন নামঞ্জুর করে তাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।

১৯৯৯ সালে কাজী হায়াৎ পরিচালিত ‘ধর’ ও ‘তেজি’ সিনেমায় অভিনয়ের মাধ্যমে দৃষ্টি কাড়েন চলচ্চিত্রপ্রেমীদের। ‘তেজি’ সিনেমায় নায়ক মান্নার বিপরীতে অভিনয় করে উঠে আসেন জনপ্রিয় নায়িকাদের কাতারে। তারপর আর খুব বেশি ধরে রাখতে পারেননি নিজের জনপ্রিয়তা। উত্থান-পতনের পথ পেরিয়ে একটা সময় চলে যান নিভৃত জীবনে।

অভিনেত্রী একা চিত্রনায়ক মান্না, রুবেল, আমিন খান, আলেকজান্ডার বো, অমিত হাসান ও শাকিব খানের সঙ্গে জুটি হয়ে অন্তত ৩০টি সিনেমায় অভিনয় করেছেন। ২০০৮ সালে মুক্তি পাওয়া ‘বাহাদুর সন্তান’ ছিল তার সবশেষ সিনেমা।

অনলাইনে খুব সহজে টাকা ইনকাম করার উপায়