in

মামলার অভিযুক্তকে জেরা করার সময় সাব-ইন্সপেক্টরের মৃত্যু

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: শিশু অপহরণ মামলায় অভিযুক্তকে জেরা করার সময় অসুস্থ হয়ে পড়েন পশ্চিমবঙ্গের উল্টোডাঙা থানার সাব-ইন্সপেক্টর আফতাব মেহতাব। তড়িঘড়ি করে ভর্তি করা হয় হাসপাতালে। আজ ভোরে হাসপাতালে প্রাণহানি হয় তাঁর। অভিযোগ, রাস্তায় ভিড় থাকার ফলে সময়মতো ওই পুলিশ কর্মকর্তাকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া যায়নি বলেই প্রাণহানি।

পুলিশ সূত্রে খবর, গত শুক্রবার উল্টোডাঙা থানা এলাকায় বছর তিনেকের একটি শিশু নিখোঁজ হয়ে যায়। তার পরিবারের তরফে অপহরণের মামলা দায়ের হয়। সাব-ইন্সপেক্টর আফতাব মেহতাবই ঘটনাটির তদন্ত করছিলেন। গত মঙ্গলবার অভিযুক্তকে গ্রেপ্তারও করেন তিনি। কেন অপহরণ করেছিল, কোথায় রয়েছে শিশুটি, তা জানতে উল্টোডাঙা থানায় অভিযুক্তকে জেরা করছিলেন ওই সাব ইনস্পেক্টর।

অন্যান্য পুলিশকর্মীদের দাবি, অভিযুক্তদের সঙ্গে কথা বলার সময় প্রচণ্ড ঘামছিলেন তিনি। অসুস্থ বোধ করতে শুরু করেন। তড়িঘড়ি ওসি তাঁকে গাড়িতে চাপিয়ে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার বন্দোবস্ত করেন। সপ্তমীর রাতে রাস্তায় উৎসবমুখর জনতার ভিড় ছিল যথেষ্ট। অভিযোগ, তাই হাসপাতালে নিয়ে যেতে কিছুটা বেশি সময় লাগে। তবে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ যদিও সাব-ইন্সপেক্টরকে প্রাথমিক পরীক্ষা নিরীক্ষার পর স্থিতিশীল বলেই জানান। রাতেই ঘটে অঘটন। গভীর রাতে একাধিকবার ওই পুলিশ আধিকারিক হৃদরোগে আক্রান্ত হন। ভোর ৪টে ২০ মিনিটে মৃত্যু হয় তাঁর।

অন্যান্য পুলিশ কর্মীদের দাবি, সাব-ইন্সপেক্টরকে আফতাব আহমেদ ভীষণ আবেগপ্রবণ ছিলেন। তাঁর একটি শিশুকন্যাও রয়েছে। তাই নিখোঁজ কাণ্ডের তদন্তে একটু বেশিই আবেগপ্রবণ হয়ে পড়েছিলেন তিনি। সে কারণে এই দুর্ঘটনা বলেই মনে করছেন অনেকেই। এদিকে, নিখোঁজ ওই শিশুকন্যাকে এখনও খুঁজে পাওয়া যায়নি। তাকে খুঁজে বের করার চেষ্টা চলছে।-সংবাদ প্রতিদিন