মিয়ানমারে বিস্ফোরণে উড়ে গেল সেনা বহনকারী ট্রাক, নিহত ৬

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : মিয়ানমারের বৃহত্তম শহর ইয়াঙ্গুনে সেনা বহনকারী একটি ট্রাক বিস্ফোরণে উড়ে গেছে। শুক্রবার বিকেলে ইয়াঙ্গুনের টাম্বি শহরে এই ঘটনা ঘটে।

মিয়ানমারের স্থানীয় গণমাধ্যম ‘মিয়ানমার নাউ’য়ের খবরে এই ঘটনাকে সম্ভাব্য ‘জান্তাবিরোধী ভয়াবহ আক্রমণ’ বলে উল্লেখ করা হয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শীদের বরাতে খবরে বলা হয়েছে, সেনাবাহিনীর একটি ট্রাক সেনা সমর্থিত ইউনিয়ন সলিডারিটি অ্যান্ড ডেভলপমেন্ট পার্টি (ইউএসডিপি) অফিসের বাইরে পার্ক করা ছিল। এই জায়গাটি শহরের বাসস্টপেজ থেকে বেশি দূরে নয়। ট্রাকটি ৩টা ২০ মিনিটে বিস্ফোরণ হয়।

প্রত্যক্ষদর্শী একজন বলেন, ট্যাক্সি থেকে কয়েক ব্যক্তি সামরিক ট্রাকটিতে বোমা নিক্ষেপ করে। যখন বোমা বিস্ফোরিত হয় আমি ভয়বহ শব্দ শুনতে পেয়েছিলাম। বিস্ফোরণে ট্রাকটি সম্পূণ উড়ে যায় এবং আগুন ধরে পুড়ে যায়। বিস্ফোরণের পরই ঘটনাস্থলে অ্যাম্বুলেন্স হাজির হয়।

তবে ট্রাকটিতে কতজন সেনা ছিল প্রত্যক্ষদর্শীরা সেটা নিশ্চিতভাবে জানাতে না পারলেও একজন প্রত্যক্ষদর্শী বলেছেন, ট্রাকের সামনের আসনে দুইজন সেনা সদস্য ফোন ব্যবহার করছিলেন আর পেছনে চারজন সেনা ছিল। তিনদিন যাবৎ ইউএসডিপি অফিসের সামনে ট্রাকটি পার্ক করা ছিল।

ঘটনাস্থল সংলগ্ন এলাকায় বসবাসকারী একজন জানান, এই ঘটনার পর বিকালে টাম্বি বাজারে ট্রাফিক সংযোগে একাধিক বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে। তিনি বলেন, বিস্ফোরণে একজন ট্যাক্সি ড্রাইভারের হাত উড়ে গেছে। যখন ট্রাফিক সিগন্যাল লাল ছিল এবং গাড়িগুলো অপেক্ষা করছিল; সেই সময়ই বিস্ফোরণ হয়। ঘটনার পর পরই অস্ত্রধারী দুইজন সেনা ঘটনাস্থলে আসেন বলেও জানান তিনি।

মিয়ানমার নাউয়ের খবরে বলা হয়েছে, শুক্রবার মিয়ানমারের বৃহত্তম শহর ইয়াঙ্গুনে বিস্ফোরণের ঘটনায় কোনো গোষ্ঠী দায় স্বীকার করেনি। তবে মিয়ানমারের গেরিলারা পূর্বে জান্তার লক্ষ্যবস্তুতে হামলার হুমকি দিয়েছিল। গত ১ ফেব্রুয়ারি মিয়ানমারে সামরিক অভ্যুত্থান হওয়ার পর দেশটিতে অস্থিরতা চলছে।


জুমবাংলানিউজ/এসআই