in ,

মুম্বাইয়ের বিপক্ষে চেন্নাইয়ের দুর্দান্ত জয়


স্পোর্টস ডেস্ক : আইপিএলের চলমান আসরের ৩০তম ম্যাচে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের বিপক্ষে রুতুরাজ গায়কড়ের অসাধারণ ব্যাটিংয়ে দুর্দান্ত জয় পেল চেন্নাই সুপার কিংস।

রবিবার দুবাই ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট স্টেডিয়ামে নির্ধারতি ২০ ওভার শেষে ৬ উইকেট হারিয়ে ১৫৬ রান করে চেন্নাই। জবাবে ৮ উইকেট হারিয়ে ১৩৮ রান করে মুম্বাই। ফলে ২০ রানের জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে মহেন্দ্র সিং ধোনির চেন্নাই।

এর আগে টস জিতে প্রথমে ব্যাট করতে নেমে রুতুরাজ গায়কড়ের অপরাজিত দারুণ ইনিংসে দেড়শ রান পার করে চেন্নাই। যদিও শুরুটা মোটেও ভালো ছিল না দলটির। ট্রেন্ট বোল্ট ও অ্যাডাম মিলনের তোপে দলীয় ২৪ রানের মাথায় ৪ উইকেট হারিয়ে বসে তারা। ফাফ ডু প্লেসি ও মঈন আলী শূন্য রানে ফেরেন। কনুইয়ের চোটে মাঠ ছাড়া আম্বাতি রায়ডুও কোনো রান করেন পারেননি। ৪ রান করেন সুরেশ রায়না। আর ব্যক্তিগত ৩ রানে ফেরেন অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনি।
কোনঠাসা চেন্নাইয়ের হয়ে ত্রাতা হন গায়কড়। শেষের দিকের ব্যাটসম্যান রবীন্দ্র জাদেজা ও ডোয়েন ব্রাভোর সঙ্গে দারুণ দুটি জুটি গড়ে দলকে ছোট সংগ্রহের হাত থেকে রক্ষা করেন। শেষ পর্যন্ত ৫৮ বলে ৯টি চার ও ৪টি ছক্কায় ৮৮ রানের হার না মানা ইনিংস খেলেন। এছাড়া জাদেজা ২৬ ও ব্রাভো ৮ বলে ২৩ রানে ক্যামিও ইনিংস খেলেন। শেষ পর্যন্ত ৬ উইকেট হারিয়ে ১৫৬ রান করে চেন্নাই।

মুম্বাই বোলার বোল্ট, মিলনে ও জসপ্রিত বুমরাহ ২টি করে উইকেট পান।

১৫৭ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে চেন্নাই বোলারদের সামনে নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারায় মুম্বাইয়ের ব্যাটসম্যানরা। টপঅর্ডারের কেউই সুবিধে করতে পারেনি। শেষ অবধি লড়ে গেলেও জয় এনে দিতে পারেননি সুরেশ তিওয়ারি। ৪০ বলে ৫ চারে ৫০ রানে অপরাজিত থাকেন তিনি। অন্যদের কেউই ২০ রানও করতে পারেননি।

চেন্নাই বোলারদের মধ্যে সর্বোচ্চ ৩টি উইকেট পান ডোয়েন ব্রাভো। এছাড়া ২টি উইকেট তুলে নেন দীপক চাহার।

গত এপ্রিলে শুরু হওয়া আইপিএলের ১৪তম আসরটি মে মাসের শুরুর দিকে ভারতে ভয়াবহ করোনা পরিস্থিতির কারণে স্থগিত হয়ে যায়। পরে বিসিসিআই সিদ্ধান্ত নেয় সেপ্টেম্বর থেকে সংযুক্ত আরব আমিরাতে বাকি অংশ পরিচালনা করার।