in ,

মেসির কোপা জয়ে খুশি হয়েছিলেন ব্রাজিলের রোনালদিনহোও

স্পোর্টস ডেস্ক: বিশ্ব ফুটবলের অন্যতম জমজমাট লড়াই ব্রাজিল-আর্জেন্টিনার সুপার ক্লাসিকো ম্যাচ। গেল মাসেই কোপা আমেরিকার ফাইনালে মুখোমুখি হয়েছিল এ দুই দল। যেখানে অ্যাঞ্জেল ডি মারিয়ার করা একমাত্র গোলে ব্রাজিলকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল আর্জেন্টিনা।

নিজেদের বিপক্ষে ফাইনাল হলেও কোপা আমেরিকার ফাইনালে আর্জেন্টিনাকে সমর্থন দিয়েছিল ব্রাজিলের একটা বড় সমর্থকগোষ্ঠী, পড়শি দেশ লিওনেল মেসির জনপ্রিয়তা এমনই। সাবেক বর্তমান-ব্রাজিলীয় খেলোয়াড়দের অনেকে তার খুব কাছের বন্ধুও। নিজেদের বিপক্ষে ফাইনালে তাকে ঠিক ‘সমর্থন’ না দিলেও, তার কোপা জয়ে খুশি হয়েছেন, এমন কথা বলেছিলেন ব্রাজিল রাইটব্যাক দানি আলভেজ। এবার এমন কথা জানালেন ব্রাজিল কিংবদন্তি রোনালদিনহোও।

ব্রাজিলের মাটিতে কোপা আমেরিকা খেলতে গিয়ে দারুণ অভিজ্ঞতাই হয়েছে মেসির। পুরো পিঠে মেসির ট্যাটু করিয়ে ব্রাজিলীয় এক নাগরিক আলোচনায় এসেছিলেন, এরপর আর্জেন্টাইন অধিনায়কের স্বাক্ষরও পেয়েছিলেন সেই ভক্ত। এরপর ফাইনালে যখন ব্রাজিলের মুখোমুখি হলো তার দল আর্জেন্টিনা, ব্রাজিলের অনেকে তো বলেই বসলেন, মেসির জন্যেই সমর্থন দেবেন আর্জেন্টিনাকে। সেজন্যে নেইমার, থিয়াগো সিলভারা ক্ষেপে গিয়ে সেসব সমর্থককে ভর্ৎসনাও করেছিলেন বেশ।

সাবেক ব্রাজিল কিংবদন্তিরা অবশ্য সে পথে হাঁটেননি। ফাইনালে সমর্থন দিয়েছেন নিজেদের দেশকেই। তবে হারের কষ্ট পেলেও সেটা কিছুটা কমে গেছে মেসির হাসিমুখ দেখে। আগে মেসির সাবেক বার্সা সতীর্থ দানি আলভেজ জানিয়েছিলেন বিষয়টা, এবার জানালেন রোনালদিনহোও।

সম্প্রতি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম টুইচে এক লাইভে বললেন, ‘ব্রাজিলের হারটা আমাকে কষ্ট দিয়েছে ঠিক। তবে লিওর (মেসি) জন্য আমি খুব খুশি। তার এটাই কমতি ছিল, জাতীয় দলের হয়ে কিছু জেতা। সেটা পূরণ হয়ে যাওয়ায় আমি বেশ আনন্দিত। বন্ধুদেরকে আনন্দিত হতে দেখলে আমি নিজেও বেশ আনন্দিত হই।’

বার্সেলোনা ছেড়েছেন সেই ২০০৮ সালে। তখনকার বন্ধুত্বটা কি এখনো অমলিন? এমন এক প্রশ্নের জবাবে ‘রোনি’ বলেন, ‘মেসি আমার বন্ধু। আমরা হয়তো প্রতি দিনই কথা বলি না। তবে যখনই সময় হয় আমরা একে অপরের সঙ্গে কথা বলি।’